৯:২৪ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শনিবার | | ১১ মুহররম ১৪৪০


‘হামলাকারী ছেলেটার ওপর আমার রাগ নেই’

১৪ মার্চ ২০১৮, ০২:২১ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : ‘সবার দোয়ায় বেঁচে আছি।  আমার ওপর হামলার পর দেশব্যাপী যেভাবে আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে সেজন্য ধন্যবাদ।  যে ছেলেটা হামলা করেছে, আমি তার শাস্তি চাই না।  ওর ওপর আমার রাগও নেই।  কেউ ভুল বুঝিয়ে তাকে হামলায় উদ্ধুদ্ধ করেছে। ’ সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেই এসব কথা বলেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল। 

বুধবার (১৪ মার্চ) দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে তাকে বহনকারী নভোএয়ারের একটি বিমান সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।  অধ্যাপক জাফর ইকবালকে বরণ করে নিতে শাবিপ্রবির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বিমানবন্দরে সকাল থেকেই অপেক্ষা করছিলেন।  অপেক্ষা করছিলেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরাও।  শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ফুল দিয়ে তাকে স্বাগত জানান। 
সিলেটে জাফর ইকবাল

জাফর ইকবাল কথা বলা শেষ করার পর তার স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হক বলেন, ‘চিকিৎসকরা তাকে (জাফর ইকবাল) বেশিক্ষণ কথা বলতে নিষেধ করেছেন।  নিরাপত্তায় থাকতে বলেছেন। ’ 

এদিকে অধ্যাপক জাফর ইকবালের ব্যক্তিগত সহকারী জয়নাল আবেদীন জানান, অধ্যাপক জাফর ইকবাল একদিন সিলেটে অবস্থান করে বৃহস্পতিবার (১৫ মার্চ) আবার ঢাকায় ফিরে যাবেন। 

গত ৩ মার্চ ছুরিকাহত হওয়ার পর ওই দিনই ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে  (সিএমএইচ) নিয়ে আসা হয় ড. জাফর ইকবালকে।  আজ বুধবার তিনি সেখান থেকে রিলিজ পান।  বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। 
সিলেটে জাফর ইকবাল

উল্লেখ্য, গত ৩ মার্চ বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে শাবি ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে একটি অনুষ্ঠান চলাকালে ড. জাফর ইকবালকে পেছন থেকে মাথায় ছুরিকাঘাত করে ফয়জুর রহমান ওরফে ফয়জুল।  ঘটনাস্থলেই শিক্ষার্থীরা তাকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে তুলে দেয়।  এদিকে আহত ড. জাফর ইকবালকে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।  পরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রাতেই জাফর ইকবালকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে) নিয়ে আসা হয়।