৪:২২ এএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রোববার | | ২০ সফর ১৪৪১




হোয়ানক জামাল পাড়া থেকে ব্রিটিশ আমলের ম্যাগনেটিক পিলার উদ্ধার

০৫ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৩২ এএম | নকিব


সরওয়ার কামাল, মহেশখালী প্রতিনিধি : মহেশখালী গোরাকঘাটা-জনতা বাজার সড়কের সংস্কার কাজ চলাকালীন উদ্ধার হয়েছে কোটি টাকা মুল্যের ব্রিটিশ আমলের ম্যাগনেটিক পিলার। 

উদ্ধারকৃত পিলার নিয়ে সাধারণ জনগণের মাঝে কৌতুহলের যেন শেষ নেই। 

জনশ্রুতি রয়েছে যে, এ পিলার মহা মুল্যবান ।  এতে রয়েছে শতশত কোটি টাকার মুল্যবান ম্যাগনেটিক ধাতব পদার্থ। 

পুলিশ এটি জনতার কাছ থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে।  ৩রা অক্টোবর দুপুর ১২টায় উপজেলার গোরক ঘাটা-জনতা বাজার সড়কের হোয়ানক ইউনিয়নের জামাল পাড়া নামক স্থান হতে উদ্ধার হয় এ পিলারটি। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার গোরকঘাটা-জনতা বাজার সড়কের সংস্কার কাজের জন্য এক পাশে স্কেভেটর দিয়ে খনন কাজ চলছিল।  ৩রা অক্টোবর দুপুর ১২টার দিকে সড়কের পাশে খননের সময় হঠাৎ স্কেভেটরের ফাল আটকে যায় একটি পিলার জাতীয় শক্ত লোহার বস্তুতে।  স্কেভেটর অপারেটর এটি নিয়ে রাস্তার পাশে রেখে দিলে জামাল পাড়া এলাকার মৃত নুরুচ্ছমদ সিকদারের পুত্র তোফাইল আহমদ পিলারটি নিয়ে যেতে চাইলে জনগন এতে বাঁধা দেয়। 

মূহুর্তের মধ্যে খবরটি চারদিকে ছড়িয়ে গেলে পিলারটি স্থানীয় হোয়ানক ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার আনচার উল্লাহ আকবরের বাড়ীতে জমা রাখা হয়।  পরে হোয়ানক পুলিশ ক্যাম্পের আইসি এসআই বাসু দেব এসে পিলারটি জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান, উদ্ধারকৃত পিলার টি থানায় হেফাজতে রাখা হয়েছে।  তবে এটি কথিত সেই পিলার কিনা তা আমরা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না।  লোক জনের মুখে শুনেছি কথিত ম্যাগনেটিক পিলার হলে তার সংস্পর্শে মোবাইল ফোন নিলে তা বন্ধ হয়ে যায়। 

তবে এটির বেলায় তা হচ্ছে না।  এলাকাবাসীরা জানান, গতকাল উদ্ধারকৃত পিলারের উত্তর ও দক্ষিণ পাশে ৩/৪ শ গজের ভিতরে আরো ২টি পিলার এবং বড়ছড়া শাসন্যা কাটা নামক পাহাড়ী এলাকায় আরো ১টি পিলার সহ মোট ৪টি ছিল।  উল্লেখিত ৩টি পিলার আজ থেকে প্রায় ২৫ বছর পূর্বে রাতের অন্ধকারে একটি সংঘবদ্ধ ম্যাগনেট পিলার চোরাচালানী চক্রের সদস্যরা চুরি করে তুলে নিয়ে গিয়েছে। 

গতকাল সর্বশেষ পিলারটি পাওয়া গেছে।  লোকমুখে জনশ্রুতি রয়েছে, উক্ত পিলার সংগ্রহের জন্য একটি প্রত্নতাত্নিক দল ইতিপূর্বে ব্রিটিশ আমলের একটি ম্যাপ নিয়ে পিলার গুলির অবস্থান ও সন্ধান করে গিয়েছিল।  এর পর থেকে ৩টি পিলার চুরি হয়ে যায়।