৮:৫৭ এএম, ২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৮ রমজান ১৪৪০




২৯ এপ্রিল গণহত্যায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

২৯ এপ্রিল ২০১৯, ০৭:৪৬ পিএম | জাহিদ


এম.সাইফুর রহমান, খাগড়াছড়ি : ২৯ এপ্রিল গণহত্যার প্রতিবাদে ও হত্যাকারী শান্তিবাহিনীর নেতা শন্তু লারমার ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও শোক মিছিল করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। 

সকালে খাগড়াছড়ি শহরের শাপলাচত্বরে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ লোকমান হোসাইন এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় আহবায়ক অধ্যক্ষ মো: আবু তাহের। 

এসময়ে বক্তারা বলেন, ১৯৮৬ সালে ২৯ এপ্রিল দিবাগত রাত আনুমানিক ৮টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ির মাটিরাংগা উপজেলার তাইন্দং, তবলছড়ি, বর্ণাল, বেলছড়ি, আমতলি, গুমতি, মাটিরাংগা, গুইমারা ৮টি ইউনিয়নের ৮৫টি গ্রামে এবং পানছড়ি উপজেলার লোগাং, চেঙ্গী, পানছড়ি, লতিবান, উল্টাছড়িসহ ৫টি ইউনিয়নের ৪৫টি গ্রামের বাঙ্গালীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে গনহত্যা করে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর অঙ্গ সংগঠন শান্তিবাহিনীর উপজাতি স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা।  মাত্র কয়েক ঘন্টা মধ্যে সন্ত্রাসীরা ৭৫০ জনের অধিক নারী, শিশু, আবাল-বৃদ্ধ বনিতা সহ নিরস্ত্র নিরীহ বাংগালীদের হত্যা করে এবং আহত করে ১৩শর অধিক বাঙ্গালীকে। 

শান্তিবাহিনী নামক গেরিলা উপজাতি সন্ত্রাসীরা সেদিন এতগুলো মানুষকে হত্যা করতে একটি বুলেটও ব্যবহার করেনি।  হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে, দা-দিয়ে কুপিয়েও জবাই করে নির্মমভাবে আগুনে পুড়িয়ে, এবং দেশিয় অস্ত্র দিয়ে খোঁচিয়ে খোঁচিয়ে নানা ভাবে কষ্ট দিয়ে হত্যা করেছিল।  প্রতিটি লাশকেই বিকৃত করে সেদিন চরম অমানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিল তারা।  সেদিন বেঁচে যাওয়া, ঘটনাটি স্বচক্ষে দেখা, অনেকেই কালের সাক্ষী হয়ে আছে।  কিন্তু এতো বড় গণহত্যার বিচার গত ৩২বছরেও হয়নি দাবী করে বক্তারা দ্রুত বিচারের জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। 

মহিউদ্দীন মাহির সঞ্চিালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সিনিয়র সহ- সভাপতি মো: নজরুল ইসলাম, জুয়েল দেবনাথ, দিঘীনালা সভাপতি নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামীম, সদর সভাপতি মো: নয়ন, মো: কামরুল ইসলাম,মো: রাজুসহ আরো অনেকেই।  

অন্যদিকে একই ঘটনায় হত্যাকারী সন্তু লারমার ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন ও শোক মিছিল করেছে পার্বত্য অধিকার ফোরাম ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ।  সকালে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের শাপলা চত্বরে প্রথক ভাবে সংগঠনটি এ মানববন্ধন করে।  পার্বত্য অধিকার ফোরাম ও পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদের নেতা মো: জাহিদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য অধিকার ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এসএম মাসুম রানা।  

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা সাধারণ সস্পাদক আনিস উজ্জামান, রামগড় উপজেলা কমিটির আহবায়ক ইউনুস আলী, নারী অধিকার ফোরামের সভাপতি সালমা আহম্মেদ মৌ, পার্বত্য অধিকার ফোরাম নেতা মো: রবিউল হোসেনসহ জেলা ও বিভিন্ন উপজেলা অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে অংশ নেয়। 

এতে বক্তারা, ১৯৮৬ সালের ২৯ এপ্রিল উপজাতী শান্তিবাহিনী কর্তৃক গণহত্যা জড়িতদের বিচারের দাবী জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারসহ খুন-গুম, চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী জানান।