৬:২৮ পিএম, ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ২৩ শাওয়াল ১৪৪০




উর্দ্ধতন কর্মকর্তার নির্দেশে

৫০ বছরের পুরাতন রাস্তা বন্ধ প্রতিবাদে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ মানববন্ধন

২৯ মে ২০১৯, ০৫:৫০ পিএম | জাহিদ


মো.রমজান আলী, গাজীপুর : গাজীপুর মহানগরের পোড়াবাড়ী এলাকায় বাস্তা বন্ধ করার কারণে এলাকাবাসীর মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। 

গাজীপুর মহানগরের ২৩ নং ওয়ার্ডের পোড়াবাড়ি শাহ্ ফসি এর মাজার থেকে কমিউনিটি ক্লিনিক এ রাস্তাটি প্রায় ৫০ বছরের পুরনো।  সম্প্রতি ফরেস্টের এফ ডি  পিলার দিয়ে  রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।  এ রাস্তাটি দিয়েই চলাচল করতো কয়েকটি গ্রামের লোকজন কয়েকটি শিল্প প্রতিষ্ঠান পোল্ট্রি খামার এর গাড়ি এবং কয়েকটি স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা।  এলাকাবাসীর দাবি হঠাৎ করেই ফরেস্ট ডিপার্টমেন্টের কিছু কুচক্রী মহল রাস্তার মধ্যে তিনটি এফডি পিলার পুতে রাস্তা বন্ধ করে দেয় এতে এলাকায় বাসি চরমভাবে আতঙ্কিত এবং রাস্তা চলাচলের বন্ধ করার কারণে সাধারণ মানুষ ক্ষুব্দ। 

এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত শত শত লোক চলাচল করে।  এ রাস্তার পাশে রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া একটি কমিউনিটি ক্লিনিক, রয়েছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।  মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের সময় গাজীপুর মহানগর ২৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলহাজ্ব মোঃ মঞ্জুর হোসাইন বলেন ইউনিয়ন পরিষদ থাকাকালীন সময় শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার রাস্তাটি তৈরি করেন।  এবং বন তৈরির সময়ও রাস্তাটি বন্ধ করা হয়নি। 

এ সময় তিনি বিট কর্মকর্তার প্রতি সুদৃষ্টি কামনা করেন এবং রাস্তাটি পুনরায় খুলে দেওয়ার জন্য  অনুরোধ জানান। 

এ সময় এডভোকেট সাইফুল ইসলাম বলেন, এলাকার কিছু লোক ও অসাধু কিছু বিট কর্মকর্তার কারণে এ রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়া হয়।  এদিকে এলাকাবাসী জানান,এফডি পিলার প্রথমে ছিল একটি কারখানার সামনে কিন্তু কয়েকদিন পরেই সেই একই পিলার চলে আসেন রাস্তার মাঝে।  এ সময় স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা বলেন, এ রাস্তাটিবন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে তাদের দীর্ঘ কয়েক কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে বিদ্যালয়ে যেতে হচ্ছে যার ফলে অধিক সময় ই লেট হচ্ছে ক্লাসের সময় আর দিতে হচ্ছে লেট ফ্রী,  আর শিক্ষকের পানিশমেন্ট তো আছেই। 

এ থেকে মুক্তি পেতে চায় এলাকাবাসী সহ শিক্ষার্থীরা।  তারা প্রশাসনের কাছে দাবি জানান অতিসত্বর এফ ডি ফরেস্ট পিলার যেন রাস্তা থেকে সরিয়ে এনে সাধারণ মানুষের চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়।  খুলে দেওয়া না হলে কঠোর কর্মসূচি দিবে এলাকাবাসী।  এসময় এলাকাবাসী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন,আগামী কর্মসূচিতে থাকবে ফরেস্ট ডিপার্টমেন্ট এর অফিস ঘেরাও  অবস্থান ধর্মঘট। 

এলাকাবাসীর অভিযোগে র  বিষয়ে জানতে চাইলে বাউপাড়া বিট কর্মকর্তা আজাদুর কবির জানান, আমি অবৈধ কোন কাজ করছি না আর তা যদি প্রমাণিত হয় যে আমি অবৈধ কোন কাজ করতেছি তাহলে আমাকে যেকোন সাজা দিলে মাথা পেতে নিব ,আমি যা করছি আমার উর্দ্ধতন কর্মকর্তার নির্দেশে করছি।  কারখানা রাস্তা বন্ধ করার জন্য একটি পিলার সরিয়ে নিয়ে রাস্তায় আনা হলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অচল একটি শিল্প কারখানা রয়েছে, তাদের কারখানার মালামাল আনা নেওয়ার জন্য বড় বড় গাড়ি চলাচল করতো সেগুলো এবং আরও দশটি কারখানার গাড়ি যাতে না চলতে পারে সেজন্যই পিলার গুলো সরিয়ে  রাস্তায় আনা হয়, তবে রাস্তা বন্ধ করা হয়নি পায়ে হাটা এবং রিস্কা বেন ঠেলাগাড়ি স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারে রাস্তাটি দিয়ে। 

এদিকে সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন পুরাতন রাস্তা এবং শিল্প কারখানার সামনে এফডি পিলার, এমন জবাবে বলেন আমরা এসে এগুলো উদ্ধার করছি বনের জায়গা বনকে দিচ্ছি ।  তবে প্রশ্ন একটি থেকেই যাচ্ছে, তাহলে আগের কর্মকর্তারা কি তাহলে এখান থেকে সুবিধা ভোগ করতেন। 

তবে এদিকে, এলাকাবাসী দাবি অবিলম্বে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক মহোদয় বিষয়টি দেখবেন এবং রাস্তাটি পুনরায় চলাচলের ব্যবস্থা করে দিবেন। 


keya