৬:৪৮ এএম, ২৯ মে ২০২০, শুক্রবার | | ৬ শাওয়াল ১৪৪১




৮শত ২০ ইমাম-মোয়াজ্জিম পৌরহিত-বৌদ্ধভিক্ষুকে খাদ্য সহায়তা সাংসদ ফজলে করিম চৌধুরীর

০৬ মে ২০২০, ০৪:৩৫ পিএম | নকিব


প্রদীপ শীল, রাউজানঃ করোনা মোকাবেলায় এবার রাউজানের ৮শত ২০ ইমাম-মোয়াজ্জিম, পৌরহিত ও বৌদ্ধভিক্ষু পেয়েছেন খাদ্য সহায়তা। 

৬ এপ্রিল বুধবার এই খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয় উপজেলার দক্ষিণ রাউজান ও পৌর সদর রাস বিহারী ধাম প্রাঙ্গনে। 

জানা যায়, তরুণ রাজনীতিকবিদ ফারাজ করিম চৌধুরীর ত্রাণ তহবিল থেকে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। 

সেন্টাল বয়েজ অব রাউজানের ব্যবস্থাপনায় তিনটি ধর্মের ইমাম, পৌরহিত ও বৌদ্ধ ভিক্ষুদের খাদ্য সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। 

ত্রাণ কার্যক্রমের প্রধান মূখপাত্র উপজেলা যুবলীগের সভাপতি প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজের সভাপতিত্বে ও পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক যুবললীগ নেতা সুমন দে'র  সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ চৌধুরী। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেপায়েত উল্লাহ পিপিএম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, কামরুল হাসান বাহাদুর, পৌর কাউন্সিলর এডভোকেট সমীর দাশ গুপ্ত, ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, যুবলীগ নেতা সারজু মোহাম্মদ নাছের, তপন দে, সাজু পালিত, দিপলু দে দিপু, অনুপ চক্রবর্তী, সেন্টাল বয়েজ অব রাউজানের সভাপতি সাইদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক ইমতিয়াজ জামাল নকিবসহ আরো অনেকেই। 

প্রধান অতিথি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি বলেন, মহামারী করোনার কারণে সারা বিশ্ব আজ অচল অবস্থা।  আকাশ পথ, নৌ পথ ও রেল পথ থেকে শুরু করে সবকিছু বন্ধ।  এই সংকট কালে নিজ নিজ সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করা ছাড়া আমাদের কিছুই নেই। 

তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ৬৫ হাজার মানুষকে আমরা খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। 

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর উপহারও আমরা বিতরণ করেছি।  প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘ মেয়াদী রেশন কার্ড নিয়ম করে ওএমএস চাউল বিতরণ শুরু করেছে।  মাত্র কেজি ১০টাকায় এই চাউল ক্রয় করতে পারবে।  পরে প্রধান অতিথি তিন ধর্মের ইমাম-মোয়াজ্জিম,পৌরহিত ও বৌদ্ধ ভিক্ষুকদের মাঝ খাদ্য সামগ্রীর উপহার তুলে দেন।