৪:১৩ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১, রোববার | | ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩




চাঁপাইনবাবগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান অপহরণ

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল


আশরাফুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ছত্রাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হককে অপহরনের ঘটনায় আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১০ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদপ্রার্থী মোস্তাকুল ইসলাম পিন্টুকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা হয়েছে। 

অপহরণের শিকার হওয়া চেয়ারম্যান শামসুল হক বাদী হয়ে গত রোববার রাতে পিন্টুসহ ৯জনের নাম উল্লেখ করে শিবগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন।  মামলার প্রধান আসামী মোস্তাকুল আলম পিন্টু চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য আবদুল ওদুদের ভাইরা ভাই।  মামলা দায়ের করার পর রোববার রাতে সরকারের মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটে।  এতে সাধারণ মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।     

গত রোববার সকাল ১১টার দিকে ছত্রাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সম্মেলন কক্ষে সভা চলাকালে ২০/২৫জনের একটি সন্ত্রাসী দল অস্ত্রের মুখে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে নিয়ে যায় ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হককে।  ইউপি চেয়ারম্যানকে অপহরণের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে তার কর্মী সমর্থক ও এলাকাবাসীরা।  প্রতিবাদে তাৎক্ষনিকভাবে তারা রাস্তায় নেমে আসে।  এসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে অবরোধ করে রাখে তারা। 

পরে বিকেল তিনটার দিকে অপহৃত ইউপি চেয়ারম্যানকে পুলিশ উদ্ধার করলে প্রায় চার ঘন্টা পর সড়ক অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।  এঘটনায় চেয়ারম্যান শামসুল হক বাদী হয়ে গত রোববার রাতে পিন্টুসহ ৯জনের নাম উল্লেখ করে শিবগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন।  এদিকে মামলা দায়ের করার পর রোববার রাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কের সরকারের মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরন করে সন্ত্রাসীরা।  এসময় তারা সড়কে যানবাহন চলাচলেও প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে।  পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।   

অপহৃত চেয়ারম্যান শামসুল হোদার ছেলে সোহেল রানা বাবু অভিযোগ করেন, আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি ১০ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।  মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারে চাপ সৃষ্টি করতেই প্রতিপক্ষ মোস্তাকুল ইসলাম পিন্টুর লোকজন তার বাবাকে  ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অপরহরণ করেছিল। 

অন্যদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে মোস্তাকুল আলম পিন্টু জানান, তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে।  ঘটনার সময় এলাকায় ছিলেননা বলে দাবী  করেন তিনি। 

এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান অপহনের ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার ছত্রাজিতপুর বাজারে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সম্পাদনায়: সাইমুন/এসএনএন২৪.কম