১২:০৯ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার | | ৯ সফর ১৪৪৩




জয়পুরহাটে পল্লী বিদ্যুতের ভোটার কার্ডসহ আটক ১

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল


আলকারিয়া চৌধুরী, জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এলাকা পরিচালক নির্বাচনের ভোটার কার্ড সংগ্রহ করে ভোট বানচালের প্রচেষ্টাকে রুখে দিলো কালাই থানা পুলিশ।  ১৯টি ভোটার কার্ডসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়েছে শহিদুল ইসলাম (৩৮) নামে এক যুবককে।  সে কালাই উপজেলার বিয়ালা গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। 

পুলিশ জানিয়েছে, ১৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক পদে ৩নং কালাই এলাকা নির্বাচনে ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে নিজেদের প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে ভোটার কার্ড সংগ্রহ করছিল শহিদুল ইসলাম নামের এক সমর্থক।  খবর পেয়ে কালাই থানার ওসি (তদন্ত) বিশ্বজিৎ বর্মণ এর নেতেৃত্বে একদল পুলিশ বিয়ালা গ্রাম থেকে ভোটার কার্ডসহ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। 
অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম কার্ড সংগ্রহের কথা স্বীকার করলেও সে কার সমর্থক তা স্বীকার করেনি। এ ব্যাপারে পরিচালক পদপ্রার্থী এনামুল হক বলেন, অনৈতিক পন্থায় প্রতিপক্ষরা বিজয় ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে।  প্রশাসনিক হস্তক্ষেপে তাদের এক চিহ্নিত সমর্থক গ্রেফতার হওয়ায় তা আরো একবার প্রমানিত হলো।  বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন প্রশাসন সে প্রত্যাশা রাখি। 
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মহা ব্যাবস্থাপক প্রকৌশলী আব্দুল কুদ্দুস জানান, ভোটের পূর্বে কোন ভোটারের কাছ থেকে ভোটার কার্ড সংগ্রহের নিয়ম নেই।  প্রশাসনিক হস্তক্ষেপে এই অনিয়ময়ের সাথে জড়িত একজনকে গ্রেফতার করায় আমরা আরো সতর্কতার সাথে কাজ করবো।  সুষ্ঠ ভোটের স্বার্থে প্রশাসনের সার্বিক সহযোগীতা থাকবে। 
জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কালাই এলাকা পরিচালক নির্বাচনে এনামুল হক দেয়াল ঘড়ি প্রতিক, সেলিম হোসেন টেলিভিশন প্রতিক ও আতাউর রহমান খসরু ছাতা প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দীতা করছেন। কালাই থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে

সম্পাদনায় : রফিকুল ইসলাম-১৪, এসএনএন২৪.কম