১০:২০ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার | | ১৯ মুহররম ১৪৪৪




হ্যাটট্রিক জয়ের পর যা বললেন মেয়র আইভী

১৭ জানুয়ারী ২০২২, ১০:২৩ এএম |


এসএনএন২৪.কম:   নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, কাকা অনেক ভোট পেয়েছেন, তাকে (তৈমূর আলম খন্দকার) অভিনন্দন জানাতে চাচ্ছি।  আপনার মেয়ে জিতেছে। 

মেয়ে তো জিতবেই, বাবারা সব সময় মেয়েদের জিতিয়ে দেয়।  তিনি যেহেতু আমার চাচা, তিনিও খুশি হয়েছে যে চুনকার মেয়ে জিতেছে, উনারই মেয়ে জিতেছে।   

তিনি আরও বলেন, তার যে পরিকল্পনা আছে আশা করি সেগুলো বাস্তবায়নে তিনি আমাকে সহায়তা করবেন।  আমি বলব, এখানে মানুষের অবদান সবচেয়ে বেশি।  এখানে নৌকা আর আইভী এক।   

রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে বিজয়ী হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এ কথা বলেন তিনি। 

তিনি বলেন, আইভী এ শহরেই থাকতে চায়।  জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত মানুষের পাশে থাকতে চায়।  জীবনের শেষ দিনটি পর্যন্ত মানুষের জন্য কাজ করতে চাই।  এই নারায়ণগঞ্জ মানুষের জন্য নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য।  তারা যেমন আমার বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছে আমিও তাদের পাশে থাকতে চাই। 

আইভী বলেন, কোনো ভয় ও শঙ্কা কাজ করেনি।  আমার কনফিডেন্স দেখে অনেকে মনে করেছিলেন, আমি ওভার কনফিডেন্স।  কনফিডেন্সে না থাকলে নেতাকর্মীরা মন মরা হয়ে যায়।  আমি ছোটবেলা থেকেই দেখে আসছি।  আব্বাও এ শহরে কাজ করেছে।  আমি জানতাম তারা আমাকে বিমুখ করবে না।  ভোট স্লো হয়েছে, হয়তো আরও ভোট পড়লে ব্যবধানটা আরও বড় হতো।   

তিনি আরও বলেন, আমি নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ দিতে চাই।  তারা এত বেশি সক্রিয় ছিলেন, যার ফলে কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।  আমি আপনাদের কাছে ঋণী।  আমার জন্য দোয়া করবেন।  যে প্রত্যাশা নিয়ে মানুষ ভোট দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নৌকা দিয়েছে সেটা যেন পূরণ করতে পারি। 

আইভী বলেন, উনি (তৈমূর) যে ইশতেহার দিয়েছে, তা ফলো করার চেষ্টা করবো।  আমি উনার সঙ্গে কথা বলব, আগেও কথা হতো।   

শামীম ওসমানকে ইঙ্গিত করে আইভী বলেন, যাদের কথা বললেন, সবাইকে নিয়ে তো কাজ করা সম্ভব না।  যে কাজগুলো বাকি সেগুলো করব।  আমি শহরের মানুষদের নিয়েই এগিয়ে যাবো।  আমি কখনো দলমত দেখিনি।  কে ভোট দিলো, কে দিলো না—তাও আমি কখনো দেখিনি। 

রোববার সন্ধ্যায় সব কেন্দ্র থেকে আসা ফলাফলে আইভী বিজয়ী হয়েছেন।  ফলাফলে দেখা যায়, ১৯২ কেন্দ্রে সেলিনা হায়াৎ আইভী পেয়েছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ২৭৩ ভোট।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৈমূর আলম খন্দকার পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৭১ ভোট। 

এর আগে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে এই ভোটগ্রহণ।   


keya