১:৩৫ এএম, ১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার | | ১২ মুহররম ১৪৪৪




সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উক্তাপ

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল



অনলাইন ডেক্স, সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই হেভিওয়েট চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রচারনা নিয়ে সুনামগঞ্জ ১ আসনের রাজনীতির রাজধানী খ্যাত তাহিরপুরে সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উক্তাপ ও বিভাজন ছড়িয়ে পড়েছে। 

জানা গেছে, জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমন ও সাবেক সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুটের পক্ষে ভোট চাওয়াকে কেন্দ্র বুধবার  তাহিরপুর সদরে দলীয় একাংশের নেতার্মীদের দ্বারা গণপিটুনি খেয়ে হাসপাতালে গেছেন। 

দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, তাহিরপুর উপজেলা চত্ত্বর জুড়ে বুধবার দিনভর দু’প্রার্থীর পক্ষদ্বয়ের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছিলো।   উপজেলা আওয়ামীলীগ’র কার্যলয়ে উন্নয়নের আট বছর ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আলোচনা সভায় বুধবার  সুনামগঞ্জ-১ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য  মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমনের পক্ষে চশমা প্রতীকে ভোট চান দলীয় সমর্থক ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য সদস্যদের নিকট।  এরপর এমপি রতন উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরী মিলনায়তনে মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভায় চলে গেলে  উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে আসেন আ’লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সুনামগঞ্জ পৌর মেয়রন আইয়ুব বখত জগলুল।  তিনিও জেলা আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আলহাজ¦ নুরুল হুদা মুকুটের পক্ষে মোটরসাইকেল প্রতীকে সমবেত উপজেলার সাত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান  ও ইউপি সদস্যদেও নিকট ভোট চান।  ওই সময় পৌর মেয়র  মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি নির্বাচনী আচরনবিধি লঙ্গন করছেন  তার কথায় সায় না দেয়ার আহবান জানিয়ে বক্তব্য দিলে সভায় উপস্থিত থাকা এমপি রতনের  সমর্থক বাস্তুহারা লীগের কথিত সভাপতি  সদর ইউনিয়নের  ইউপি সদস্য মতিউর রহমান মতি  মেয়রের দেয়া বক্তব্যের প্রতিবাদ ও অসদারচরণ করলে  দলীয় নেতাকর্মীরা মতিকে গণপিটুনি দিয়ে কার্যালয় থেকে বের করে দেন।   

তাহিরপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ  সম্পাদক অমল কান্তি কর বলেন , কথিত বাস্তুহারালীগের সভাপতি দাবিদার মতিউর ওরফে মতি বিগত কয়েকমাস পুর্বে উপজেলা সদরে রাতের আঁধারে মাতাল হয়ে এক সংখ্যালঘু পরিবারের মহিলাকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে তাকে বেঁধে রাখা হয়।  ওই মামলায় কিছুদিন গাঁ ঢাকা দিয়ে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে এসে মতি এলাকায় ফিরে এসে নানা অপকর্মে লিপ্ত হয়েছে।  এদিকে বুধবার বিকেলের দিকে মতি পুন:রায় তার লোকজন নিয়ে এসে দুপুরের ঘটনার জের ধরে দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর হামলার চেষ্টা করলে  দ্বিতীয় দফায় নেতাকর্মীরা মতিকে পিটিয়ে আহত করেছেন বলে জানা গেছে। 

এ ব্যাপারে মতিউরের মুঠোফোনে কল করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে উনার বক্তব্য জানতে চাওয়া মাত্রই  তিনি অসুস্থ বলে তার মুঠোফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন। 

তাহিরপুর থানার ওসি শ্রী নন্দন কান্তি ধর বলেন,পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে  পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 


সম্পাদনায় - নিশি / এসএনএন২৪.কম


keya