৭:১৬ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার | | ১৯ সফর ১৪৪৩




সাগরের সৌন্দর্য আর নির্মল হাওয়ায় পতেঙ্গা সৈকত যেন রূপ নিয়েছে জনসমুদ্রে

০৫ জুন ২০২১, ১২:৩১ পিএম |


নকিব ছিদ্দিকী:
সাগরের সৌন্দর্য আর নির্মল হাওয়ার আতিথেয়তায় পতেঙ্গা সৈকত যেন রূপ নিয়েছে জনসমুদ্রে। 

টানা কয়েক দিনের তাপদাহের পর স্বস্তি আসে বৃষ্টিতে।  চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত অভিমুখে সকাল থেকেই জনস্রোত।  নানা বয়সী মানুষের মিলনমেলা বসেছে এ সৈকতে। 

সৈকতে এসে কেউ মেতেছেন সমুদ্র স্নানে, কেউবা উড়াচ্ছেন ঘুড়ি, অনেকে চড়ছেন আবার স্ডি বোটে।  করোনা পরিস্থিতিতে স্ব্যাস্থবিধি মানার কথা থাকলেও অনেকের ছির না তা । প্রবেশদ্বার যদিও মাস্ক বিক্রি করতে দেখা গেলেও তা পরছে না অনেকে । 
নগরীর হামজারবাগ থেকে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে স্ব্যাস্থবিধি মেনে বেড়াতে এসেছেন প্রকৌশলী  শফিকুল আলম মুবিন।  সহকর্মীদের নিয়ে  স্পিড বোটে চড়ে সমুদ্র স্নানে নেমেছেন।  আর সৈকতের পাড়ে মুখরোচক খাবারের ভোজ করেছেন ।  তিনি বলেন, অন্যান্য বারের তুলনায় এ বছর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়েছে।  অন্যান্য বছর সৈকতে হাঁটাহাঁটিতে তেমন কোনো সুবিধা না থাকলেও নির্মাণাধীন আউটার রিং রোডের কারণে সৈকতে বিভিন্ন উন্নয়ন হওয়ায় মানুষ ভালোভাবে ঘোরাঘুরি করতে পারছেন।  এছাড়াও সৈকতে ঘোরাঘুরির জায়গাও বেড়েছে। 

সৈকতে ঘুড়ি বিক্রেতা রহমান জানান, প্রতিটি ঘুড়ি বিক্রি করছেন ১৭০ থেকে ২৫০ টাকায়।  সাধারণ সময়ে পাঁচ থেকে ১০টি করে ঘুড়ি বিক্রি হলেও এখন হচ্ছে অনেক বেশি।  ছোট-বড় নানা বয়সী মানুষ ঘুড়ি উড়াচ্ছেন সৈকতে। 

পুলিশ জানায়, “সাধারণ মানুষ যেন খুশি মনে ঘুরতে পারে তাই আমাদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।  যারা সমুদ্রে গোসল করতে নামছেন তাদের দেওয়া হচ্ছে নানা ধরনের সতর্কতামূলক বার্তা। ”