৩:৩২ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার | | ২০ সফর ১৪৪৩




করোনার মধ্যেই পানির দাম বাড়ালো ওয়াসা

২৫ মে ২০২১, ০১:১৮ পিএম |


এসএনএন২৪.কম: করোনা মহামারির মধ্যেই আবাসিক ও বাণিজ্যিক পর্যায়ে প্রতি ১ হাজার লিটারে পানির দাম ৫ শতাংশ হারে বাড়িয়েছে ঢাকা ওয়াসা।  সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে আগামী ১ জুলাই থেকে। 

সোমবার (২৪ মে) ওয়াসার বোর্ড সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  সভায় যুক্তরাষ্ট্র থেকে অনলাইনে যুক্ত হন সংস্থাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খান। 

জানা যায়, নতুন দর অনুযায়ী আবাসিক গ্রাহকদের প্রতি ১ হাজার লিটার পানির দাম দাঁড়াবে ১৫ টাকা ১৮ পয়সা।  বর্তমানে ১ হাজার লিটার পানির দাম ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা।  নতুন দাম কার্যকর হলে বাণিজ্যিক সংযোগের ক্ষেত্রে প্রতি এক হাজার লিটার পানির দাম দিতে হবে ৪২ টাকা, যা আগে ছিল ৪০ টাকা। 

পানির দাম বাড়ানোর এ প্রস্তাব গত মার্চেই দিয়েছিলেন ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খান।  তার প্রস্তাব সিদ্ধান্ত আকারে কার্যকর করার জন্য ওয়াসার বোর্ড সভায় অনুমোদনের প্রয়োজন ছিল।  ওই মাসে অনুষ্ঠিত ওয়াসার ২৭৮তম বোর্ড সভায় পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ছিল ওয়াসার। 

২০২০ সালের এপ্রিলেও পানির দাম বাড়িয়ে ছিল ঢাকা ওয়াসা।  তখন আবাসিকে প্রতি ইউনিটের দাম বেড়েছিল ২ টাকা ৯০ পয়সা।  ২০০৯ সালে বর্তমান সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে গত ১৩ বছরে এ নিয়ে ১৪ বার পানির দাম বাড়ানো হলো। 

দাম বাড়ানোর বিষয়ে ওয়াসা জানায়, পানির উৎপাদন ব্যয় ও বিক্রয়মূল্যের মধ্যে অনেক ব্যবধান।  বর্তমানে প্রতি ১ হাজার লিটার পানির উৎপাদনে প্রায় ২৫ টাকা ব্যয় হচ্ছে।  আর তা বিক্রি করতে হচ্ছে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সায়।  ওয়াসার আইন ১৯৯৬–এর ২২ (২) ধারা অনুযায়ী সংস্থাটির বোর্ড ৫ শতাংশ হারে পানির দাম বাড়াতে পারে। 

ঢাকা ওয়াসা বোর্ড চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা জানান, গত মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত সভায় করোনা মহামারির বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে পানির দাম বাড়ানো হয়নি। 

এক প্রশ্নের জবাবে গোলাম মোস্তফা বলেন, মার্চ মাসে করোনা ভীতিকর পরিস্থিতি ছিল।  এখন ভীতি থেকে মানুষ বেরিয়ে আসছে। 

তিনি বলেন, এটা দাম বাড়ানো নয়, আমরা দাম সমন্বয় বলি।  প্রতিবছর পানি উৎপাদন করতে গিয়ে আমাদের খরচ বেড়ে যায়।