৫:২৮ এএম, ৮ ডিসেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার | | ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪




রাউজানে কেউচিয়া খাল ভরাট হওয়ায় বর্ষায়  জলবদ্ধতা ও শুস্ক মৌসুমে সেচ সংকট 

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:১১ পিএম |


প্রদীপ শীল, রাউজানঃ

রাউজানের কেউচিয়া খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় বর্ষায় মৌসুমে জলবদ্ধতা ও শুস্ক মৌসুমে সেচ সংকটে চাষাবাদ ব্যহত হচ্ছে।  জানা যায়,

উপজেলার পশ্চিম ডাবুয়া, চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়ার পশ্চিম পাশ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে কেউচিয়া খাল।  খালটি রাউজান পৌরসভার ৩নং পুর্ব গহিরা মুগদা খালের সাথে মিলিত হয়েছে।  এক সময় কেউচিয়া খাল দিয়ে বর্ষার মৌসুমে পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানি প্রবাহিত হতো।  আর শুস্ক মৌসুমে কেউচিয়া খালের পানি সেচের মাধ্যমে এলাকার কৃষকরা বোরো ধান সব্জি ক্ষেতের চাষাবাদ করতো।  কেউচিয়া খালটি পশ্চিম ডাবুয়া, চিকদাইর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ভরাট হয়ে যাওয়ায় বর্ষার মৌসুমে পাহাড়ী ঢলের ¤্রােতের পানি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়ে জলবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।  এছাড়া বর্ষা মৌসুমে এলাকার বাড়ী ঘর, ফসলী জমি ও চলাচলের সড়ক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে।  অপরদিকে শুস্ক মৌসুমে কেউচিয়া খালে পানি প্রবাহ না থাকায় সেচের পানির সংকটে এলাকার কৃষকেরা চাষাবাদ করতে পারছেনা।  পশ্চিম ডাবুয়া এলাকার কৃষক সুলতান টিপু বলেন, ভরাট হওয়া কেউচিয়া খাল খনন করলে পুর্বেকার অবস্থা ফিরে পাবে।  না হয় বসতবাড়ী, ফসলী জমি, জনগনের চলাচলের সড়ক পানিতে ডুবে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি অব্যহত থাকবে।  ডাবুয়া ইউনিয়নের মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কেউচিয়া খালটি পশ্চিম ডাবুয়া এলাকায় ভরাট হয়ে পড়েছে।  ভরাট হয়ে যাওয়া কেউচিয়া খাল খনন করা হলে বর্ষার মৌসুমে পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানি প্রবাহের বাধা হতোনা।  এলাকায় জরবন্ধতা থাকবে না।  রাউজানের পশ্চিম ডাবুয়া ও চিকাদাইর ইউনিয়ন সরেজমিনে ঘুরে এলাকার কৃষকের সাথে কথা বললে, এলাকার কৃষকেরা ভরাট হয়ে যাওয়া কেউচিয়া খাল খনন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  


keya