১২:২৬ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার | | ৯ সফর ১৪৪৩




সালমান খান-কেআরকে বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন গোবিন্দ

০৫ জুন ২০২১, ১০:৪৩ এএম |


এসএনএন২৪.কম:সালমান খানকে নিশানা করে একাধিক ট্যুইটে তার ক্যারিয়ার শেষ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন কামাল রশিদ খান (কেআরকে)। 

এবার এই বিতর্কে জড়িয়ে গেল অভিনেতা গোবিন্দ’র নামও। 

সালমান খানের পর এবার স্বঘোষিত চলচ্চিত্র সমালোচক কেআরকে’র বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন গোবিন্দ।  ঠিক কী ঘটেছিল? বেশ খানিক খোলসা করে বলা যাক। 

গত ২৯ মে কামাল আর খান টুইট করে বলেন, ‘গোবিন্দ ভাই আপনার সাপোর্ট আর ভালোবাসার জন্যে অনেক ধন্যবাদ।  আমি আপনাকে কখনও নিরাশ করব না।  ’ এই টুইটের পরই সালমান খানের ভক্তদের ধারণা তৈরি হয় ভাইজানের সঙ্গে কেআরকে-র যে লড়াই চলছে তাতে সালমানের বিরুদ্ধে চলে গিয়েছেন গোবিন্দ।  

এ বিষয়টি গোবিন্দ’র নজরে আসতেই তিনি নড়েচড়ে বসেন।  সামাজিকমাধ্যমে ঘোষণা করেন, কোনওভাবেই কামাল আর খানের সঙ্গে তার কোনও যোগাযোগ নেই। 

গোবিন্দ লেখেন, আমি দেখছি কোনও কোনও মিডিয়া খবর ছড়াচ্ছে আমি নাকি কেআকে-কে সমর্থন করছি।  বহু বছর হলো কেআরকে’র সঙ্গে আমার কোনও যোগাযোগই নেই।  এই নামে অন্য কারও কথা হয়তো উনি বলেছেন, কারণ টুইটে আমাকে ট্যাগ করা নেই।  এখানে একটা কথা স্পষ্ট করে দিতে চাই।  স্বঘোষিত এই চলচ্চিত্র সমালোচক কিন্তু আমার নামেও অনেক কুৎসা করছেন।  আমি তো সঠিকভাবে জানিই না সালমান আর কামালের মধ্যে ঠিক কী সমস্যা হয়েছে।  আমার তো মনে হচ্ছে এই প্যানডেমিক পরিস্থিতিতে নিজের দিকে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্যে এই ধরনের কাজ করছেন কামাল আর খান। 

এর আগে গায়ক মিকা সিংও কামাল আর খানের কড়া সমালোচনা করেছিলেন। 

সদ্য মুক্তি পাওয়া সালমান খান অভিনীত ‘রাধে: ইওর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ সিনেমার সমালোচনা করেছেন কামাল খান।  আর সেই সমালোচনা পড়েই বেজায় চটেছেন ‘ভাইজান’।  সালমান খানের লিগাল টিম কামাল আর খানকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছে।  কামাল আর খান নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই নোটিশের ছবি শেয়ার করে লেখেন, ‘প্রিয় সালমান খান, এই মানহানির মামলাই প্রমাণ করে আপনি কতটা হতাশ এবং একই সঙ্গে নিরাশায় ভুগছেন।  আমি আমার অনুগামীদের জন্যে রিভিউ লিখি, এটাই আমার কাজ।  আমাকে রিভিউ লেখা থেকে আটকানোর চেয়ে আপনি বরং ভালো চলচ্চিত্র তৈরির দিকে মন দিন।  আমি সত্যের জন্যে লড়াই করি।  মামলার জন্যে অনেক ধন্যবাদ। 

এখানেই শেষ নয়।  মজা করে কেআরকে বলেন, আদালতে মামলার নামটি বড়ই মজার হবে ‘খান ভার্সেস খান’।  তার বক্তব্য, ‘কোনও প্রযোজক বা অভিনেতা যদি আমাকে তার সিনেমার রিভিউ করতে বারন করেন আমি তার মর্যদা দিই।  কিন্তু মানহানির মামলা করে সলমান খান প্রমাণ করলেন ‘রাধে’র রিভিউ তার উপর কতটা প্রভাব ফেলেছে।  ভবিষ্যতে ওর আর কোনও সিনেমার রিভিউ আমি করব না।