৮:৫৭ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


কাপ্তাই হ্রদে পানি বেড়েই চলেছে

১৬টি স্পীলওয়ে দিয়ে প্রতি সেকেন্ডে ৩৬ হাজার কিউসেক পানি ছাড়া হচ্ছে

২০ জুন ২০১৭, ০৫:৩৩ এএম | সাদি


নজরুল ইসলাম লাভলু , কাপ্তাই: প্রতিদিনের বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলের কারনে  কাপ্তাই হ্রদে পানি বেড়েই চলেছে।  পানির চাপ সামলাতে পিডিবি কর্তৃপক্ষ গতকাল মঙ্গলবার সকাল হতে স্পীলওয়ের ১৬টি গেট দু’ফুট খুলে দিয়েছে।  এতে প্রতি সেকেন্ডে ৩৬ হাজার কিউসেক পানি কর্ণফুলী নদীতে পড়ছে।  পানি ছাড়ার পরিমান আরও বৃদ্ধি পেতে পারে।  কারন প্রতিদিনই বর্ষন হচ্ছে।   স্পীলওয়ে দিয়ে পানি ছাড়ায় নিন্ম অঞ্চলের অনেক জায়গায় নতুন করে বন্যার সৃষ্টি হচ্ছে। 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে , গত কয়েকদিনের টানা বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের কারনে উজান থেকে দ্রুত পানি নেমে আসছে।   কাপ্তাই হ্রদে পানির উচ্চতা প্রতি মুহূর্ত্বে বৃদ্ধি পাচ্ছে।  এতে বাঁধ হুমকির মুখে পড়ার আশংকায় কর্তৃপক্ষ পানির চাপ সামাল দিতে ১৬ টি স্পীলওয়ের দু’ ফুট খুলে দিয়েছে।  এতে প্রতি সেকেন্ডে ৩৬ হাজার কিউসেক পানি নদীতে পড়ছে। 

এ ব্যপারে কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মোঃ আবদুর রহমানের সাথে গতকাল মঙ্গলবার যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন , হ্রদে এসময়  ৮১ এমএসএল (মীন সী লেভেল) পানি থাকার কথা ।  কিন্তু পানি আছে ১০৪.৪ এমএসএল।  অর্থাৎ বর্তমানে হ্রদে যে পরিমান পানি থাকার কথা তার চেয়ে প্রায় ২৪ ফুট পানি বেশি রয়েছে।   অতিবর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের কারনে হ্রদের পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়েছে।  উজান থেকে আরও পানি ধেয়ে আসেছে ।  পানির চাপ বৃদ্ধি পেলে  বাঁধ হুমকির মুখে পড়ার সম্ভাবনা থাকে ।  তাই ঝুঁকি এড়াতে কর্তৃপক্ষ স্পীলওয়ে দিয়ে পানি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে। 

বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় পানি ছাড়ার পরিমান আরও বৃদ্ধি পেতে পারে ।  বর্তমানে ৩টি ইউনিটে ১৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে ।  স্পীলওয়ে দিয়ে পানি ছাড়ার পরিমান বৃদ্ধি পাওয়ায় অতিমধ্যে রাঙ্গুনীয়া , রাউজানসহ নিন্ম অঞ্চলের কিছু কিছু এলাকায় নালা, ডোবা, পুকুর ও খাল-বিল পানিতে তলিয় যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।  উল্লেখ্য, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে উজান থেকে ধেয়ে আসা পানির চাপ সামাল দিতে গত শুক্রবার রাত থেকে স্পীলওয়ে দিয়ে অতিরিক্ত পানি ছাড়া হয়। 


keya