৮:৩৮ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


লামার ফাইতং এ প্রতিবন্ধী শিক্ষককে প্রকাশ্যে জুতা পিটা

২০ জুন ২০১৭, ০৫:৪৩ এএম | সাদি


মোঃ সেলিম উদ্দিন, লামা (বান্দরবান): বান্দরবান জেলার লামা উপজেলাধীন ফাইতং ইউনিয়নের এক প্রতিবন্ধী শিক্ষক কে পিটালো অভিভাবক।  ফাইতং উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র আবু নাঈমকে শাসন করায় গত বুধবার শিক্ষার্থীর চাচা আনোয়ার হোসেন ক্লাসরত অবস্থায় ক্লাস থেকে ডেকে নিয়ে চায়ের দোকানে প্রকাশ্যে শিক্ষককে মারধর করে। 

শিক্ষক মোঃ শহীদুল ইসলাম প্রতিবেদককে জানান, আমি ফাইতং উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজী শিক্ষক এবং একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী।  আমার একটি পা দিয়ে চলাফেরা করতে পারি না।  আবু নায়েম নামে ৭ম শ্রেণীর একটি ছাত্র নিয়মিত বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকত না।  তার বাবা ডাক্তার শাকের তাকে শাসন করতে বলায় আমি নায়েম কে শাসন করি। 

গত ৭ জুন বুধবার বেলা ১২টায় স্কুল পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য আলী আকবর আমাকে স্কুল থেকে ডেকে পাশের মোকারমের দোকানে নিয়ে যায়।  সেখানে ছেলের চাচা আনোয়ার হোসেন প্রকাশ জর্দ্দা আনোয়ার ছাত্রের বাবা ডাক্তার শাকের এর নির্দেশে আমাকে প্রকাশ্যে জুতা পিটা করে।  এসময় ওয়ার্ড মেম্বার শহীদুল ইসলাম মিন্টু সামনে থাকলেও বাধা দেয়নি।  ভয়ে ও লোকলজ্জায় বিষয়টি আমি কাউকে বলিনি।  এবিষয়ে জানতে ডাক্তার শাকের কে ফোন করলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন বলেন, একজন শিক্ষক কে জনসম্মূখে জুতা দিয়ে মারধর করা গুরুতর অন্যায়।  বিষয়টি জানতে পেরে আমরা এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে সমাধান করার চেষ্টা করছি। 

স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শামসুল ইসলাম বলেন, বিষয় প্রধান শিক্ষক আমাকে জানিয়েছে।  উভয় পক্ষকে নিয়ে বসার কথাবার্তা চলছে।  ফাইতং ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দিন বলেন, শিক্ষকের গায়ে হাত তোলা অন্যায় হয়েছে।  ছাত্রের অভিভাবকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া দরকার।  লামা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমাকে বিষয়টি কেউ জানায়নি।  তবে শিক্ষকের গায়ে হাত তোলা ঠিক হয়নি।  বিষয়টি আইনী প্রক্রিয়ায় সমাধান করা হবে। 


keya