১০:০৭ পিএম, ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার | | ২০ শাওয়াল ১৪৪০




উদ্বোধনের অপেক্ষায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার প্রবেশ দ্বার সৈয়দ আলী সড়ক

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | নকিব


আব্বাস হোসাইন আফতাব, রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম:  বহুল প্রতীক্ষিত দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার প্রবেশ দ্বার সৈয়দ আলী সড়কের
নির্মাণ কাজ ৯৭ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।  এমাসে সড়কটির পুরো নির্মান কাজ শেষ হবে।  শীঘ্রই উদ্বোধন হবে সড়কটি।  সড়কটি নির্মাণ হওয়ায় বদলে যাবে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার সার্বিক চিত্র। 

আমুল পরিবর্তন আসবে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার ৪ ইউনিয়নের মানুষের জীবন যাত্রায়।  সড়কটি নির্মাণ হওয়ায় মূল রাঙ্গুনিয়ার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হবে।  মুহুর্তেই এই সড়ক দিয়ে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা, শিলক, কোদালা, পদুয়ার বিভিন্ন স্থানে যাওয়া যাবে।  পার্শ্ববর্তী পার্বত্য জেলার বান্দরবানের সাথেও দূরত্ব কমে আসবে।  গর্ত , ভাঙ্গাচোরা সড়কের কারনে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার ৪ ইউনিয়নের সম্পাদিত বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড এতদিন ধরে অন্ধকারেই ছিল। 

সড়কটি উদ্বোধনের পর আলোর মুখ দেখবে উন্নয়নের সার্বিক কর্মকান্ড।  নতুন সড়কটির নির্মানকাজ শেষে হওয়ায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার সর্বস্তরের মানুষের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। 

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি বেহাল দশার কারণে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা মারাত্বক বিপর্যস্ত ছিল।  শুধুমাত্র সড়কটির কারণে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার ৪ ইউনিয়নের মানুষ সবদিক দিয়ে পিছিয়ে পড়েছিল।  দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গা সড়ক দিয়ে চলতে মারাত্বক বেগ পেতে হতো চলাচলকারীদের।  খানা খন্দকের কারণে এই পথের যাত্রীদের দুর্ভোগের অন্ত ছিলনা।  বৃষ্টি এলেই সড়কটি দিয়ে জন ও যান চলাচল অনেকটা বন্ধ থাকত। 

বিকল্প সড়ক দিয়ে ঘুরে আসতে যাত্রী সাধারণের দুর্ভোগ ছিল চরমে।  গোডাউন ঘাট দিয়ে কর্ণফুলী ব্রীজ নির্মিত হলেও ব্রীজের এপ্রোচ সড়ক সৈয়দ আলী সড়কের যোগাযোগ ব্যবস্থা অত্যন্ত নাজুক ছিল।  যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল না থাকায় এই এলাকায় উৎপাদিত পণ্য পানির দামে বিক্রিতে বাধ্য হতো কৃষকরা। 

উপজেলা প্রকৌশল অফিস সুত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার পল­ী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ১ কোটি ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে কাজটি গত বছরের ৬ মার্চ শুরু হয়।  ১১ শত মিটার দীর্ঘ সড়কটির ভিত্তিপ্রস্তর কাজের উদ্বোধন করেন সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।  কাজটির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আঁখি ইন্টারন্যাশনাল।  রাঙ্গুনিয়া উপজেলা প্রকৌশলী লিয়াকত আলী জানান, সড়কটির নির্মাণ কাজ প্রায়ই শেষ হওয়ার পথে। 

আগামী মাসের মধ্যেই সড়কটি উদ্বোধন হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।  সড়কটি নির্মান হওয়ায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা অত্যন্ত সহজ হবে। 

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পরিচালক সফিউল আজম জানান, সড়কটি নির্মাণ কাজের সিডিউল মোতাবেক ইতিমধ্যেই ৯৭ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।  এমাসেই সড়কটির সম্পূর্ণ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। 

সরফভাটা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন জানান, সড়কটি কার্পেটিং হওয়ায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা বদলে যাবে।  দীর্ঘদিনের সাধারণের চাহিদা ছিল সড়কটি নির্মাণ করা।  সর্বসাধারণ সড়কটি নির্মাণ হওয়ায় স্বস্তির প্রকাশ করছেন। 

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামাল হোসেন জানান, সড়কটি দিয়ে ৪ ইউনিয়নের লাখ লাখ মানুষ চলাচল করেন।  সড়কটি খানাখন্দক থাকায় সাধারণ মানুষের চাহিদার প্রেক্ষিতে পিচ ঢালাই করা হয়েছে।  সড়কটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার মানুষের সার্বিক কাজে গতি ফিরে আসবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।