৪:২০ এএম, ২৪ নভেম্বর ২০১৭, শুক্রবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

চ.বি.তে ‘হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে চ.বি. উপাচার্য

২০ আগস্ট ২০১৭, ০৫:৫৪ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : ২০ আগস্ট ২০১৭ তারিখ সকাল ১০.৩০ টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণি বিদ্যা বিভাগে ‘হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি’ উদ্বোধন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভাষণ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।  অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় সাবেক মুখ্য সচিব ও পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মো. আবদুল করিম।  অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সম্মানিত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও মহাপরিচালক এটুআই প্রকল্প জনাব কবির বিন আনোয়ার ‘হালদা নদীর জীববৈচিত্র্যের’ উপর প্রবন্ধ উপস্থাপনসহ জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় বিশেষ সুপারিশমালা পেশ করেন। 

নুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার, পিকেএসএফ-এর উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মো. ফজলুল কাদের এবং আইডিএফ-এর নির্বাহী পরিচালক জনাব জহিরুল আলম। 

চ.বি. প্রাণি বিদ্যা বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. গাজী এস এম আজমত-এর সভাপতিত্বে হালদা রিভার রক্ষা কমিটির সভাপতি ও চ.বি. প্রাণি বিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হালদা রক্ষা কমিটির সহ-সভাপতি ও চ্যানেল আই-এর চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান জনাব চৌধুরী ফরিদ উদ্দিন এবং আইডিএফ-এর পক্ষ থেকে হালদা প্রকল্প কার্যক্রম পেশ করেন আইডিএফ-এর পরিচালক জনাব নিজাম উদ্দিন। 

মাননীয় উপাচার্য তাঁর ভাষণে অতিথিবৃন্দকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ ক্যাম্পাসে স্বাগত জানান।  তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিদ্যমান উন্মুক্ত জলাশয়সমূহের মধ্যে মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র হিসেবে হালদা নদীর রয়েছে বিশেষ গুরুত্ব।  মানুষের কর্মসংস্থানের পাশাপাশি দেশে মিঠা পানির মাছ সরবরাহে হালদা নদী যুগ যুগ ধরে অসমান্য অবদান রেখে চলেছে।  আরও বলেন, নদী যেমন সমাজ-সভ্যতার সাথে সম্পর্কযুক্ত, তেমনি মানুষের জীবন-জীবিকার সাথেও নদীর রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক। 

বীর চট্টলার এ গুরুত্বপূর্ণ হালদা নদীকে বাঁচাতে হবে এবং এ নদীর পরিবেশ সুরক্ষা করতে হবে।  এ বিষয়টিকে সামনে রেখে দেশের ইতিহাসে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এই প্রথম কোন একক নদী ভিত্তিক গবেষণা কেন্দ্র ‘হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি’ স্থাপন করা হলো।  অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা ‘পিকেএসএফ’ ও আঞ্চলিক সংস্থা ‘আইডিয়ে’-এর সম্পূর্ণ অর্থে প্রতিষ্ঠিত এ গবেষণা কেন্দ্রটি সম্মানিত শিক্ষক-গবেষকদের জন্য একটি মাইল ফলক হিসেবে কাজ করবে এবং এ ল্যাবরেটরি মৎস্যবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।  তিনি আরও বলেন, শিক্ষক-গবেষকদের মান সম্মত গবেষণা কর্মের সুফল দেশের সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ও দৃশ্যমান ভূমিকা রাখবে মাননীয় উপাচার্য এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

মাননীয় সাবেক মুখ্য সচিব তাঁর ভাষণে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন প্রাক্তন ছাত্র হিসেবে অত্যন্ত আনন্দ ও গৌরবান্বিত চিত্তে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্যকে ধন্যবাদ ও বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ও গবেষণায় অনেকদূর এগিয়ে গেছে, এটি সকলের জন্য অত্যন্ত আনন্দ ও গৌরবের।  এরই ধারাবাহিকতায় এ বিশ্ববিদ্যালয়ে এ জনপদে প্রাকৃতিক একমাত্র মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীকে কেন্দ্র করে যে গবেষণাগার উদ্বোধন করা হলো তা একসময় প্রজন্মের সন্তানদের শিক্ষা ও গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।  তিনি এ উপমহাদেশের গুরুত্বপূর্ণ হালদা নদীর বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য আলোকপাত করে এর সার্বিক সুরক্ষা, ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ দূষণ রোধ, কর্মসংস্থান ইত্যাদি বিষয়ে উচুঁমানের বিজ্ঞানসম্মত গবেষণার মাধ্যমে দেশ ও জাতিকে আলোর পথ দেখাবে এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। 

পরে ফিতা কেটে সম্মানিত উদ্বোধক, মাননীয় উপাচার্য ও অন্যান্য অতিথিদের সাথে নিয়ে চ.বি. জীব বিজ্ঞান অনুষদের ৩০১ নং কক্ষে প্রতিষ্ঠিত ‘হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি’ উদ্বোধন করেন।  অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-গবেষকবৃন্দ ছাড়াও আইডিএফ, ইসাবেলা ফাউন্ডেশন, হালদা রক্ষা কমিটির সদস্যবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং চ.বি.র শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।