৪:৫৬ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০১৭, শুক্রবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

ধুনটে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

১৪ নভেম্বর ২০১৭, ০২:৩১ পিএম | মুন্না


এম. আর আলম, বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার ধুনট উপজেলার চিকাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল কাদের শিপনের বিরুদ্ধে সেচ্ছাচারিতা, দূর্ণীতি ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। 

এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ওই পরিষদের ৮ জন সদস্য স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবয় মন্ত্রনালয় সচিব, জেলা প্রশাসক এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট দাখিল করেছেন। 

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিয়া সুলতানা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ইউপি সদস্যদের অভিযোগ সমূহ তদন্তের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।  তিনি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করলে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নাজমুল কাদের শিপন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর পরিষদের সদস্যদের মতামত উপেক্ষা করে অনিয়ম, দূর্নীতির মাধ্যমে ৭ লাখ ৪৮ হাজার টাকা আত্বসাত করেছেন। 

সদস্যদের অভিযোগের মধ্যে রয়েছে ২০১৬ সালের চিকাশী ও বড়চপড়া সড়কে বন বিভাগের রোপনকৃত গাছ বিক্রির লাভের অংশ হিসাবে ২০ শতাংশ হারে ৩ লাখ ৯৬ হাজার টাকা, ২০১৭ সালে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচী প্রকল্পের ২ লাখ ৩২ হাজার টাকা এবং পরিষদের উন্নয়ন তহবিলের ১লাখ ২০হাজার টাকা। 

এই ঘটনার প্রতিকার চেয়ে ৯ নভেম্বর ওই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সরিফুন আকতার, রাশেদা খাতুন, হারুনার রশিদ, লিটন মন্ডল, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল খালেক সরকার, রুকুনুজ্জামান, মোখলেছুর রহমান স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবয় মন্ত্রনালয়ের সচিব, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 

এছাড়া এ বিষয়ে প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়ে অভিযোগকারী সদস্যরা সোমবার ধুনট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। 

এ বিষয়ে চিকাশি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল কাদের শিপন বলেন, আমি স্থানীয় রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি।  রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছে।  পরিষদের অর্থ আত্বসাতের ঘটনার সাথে আমি জড়িত না এবং সদস্যদের নিকট এ ধরনের কোন প্রমানও নেই।