৪:০১ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪০




চ.বি.তে আয়কর ক্যাম্প ও কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চ.বি.উপাচার্য

১৯ নভেম্বর ২০১৭, ০৬:৪০ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, চ.বি. অফিসার সমিতি এবং কর অঞ্চল-৩, চট্টগ্রাম এর যৌথ উদ্যোগে শিক্ষক ও অফিসারবৃন্দের আয়কর বিবরণী প্রস্তুতকরণ সহজ করার লক্ষ্যে বিগত ৫.১১.২০১৭ তারিখ চ.বি. শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ‘আয়কর বিবরণী ও কর নির্ধারণ’ শীর্ষক সেমিনারের ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে ১৯ ও ২০ নভেম্বর ২০১৭ তারিখ দু’দিনব্যাপি একটি আয়কর ক্যাম্প ও কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। 

১৯.১১.২০১৭ তারিখ বেলা ১১ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ আয়কর ক্যাম্প ও কর্মশালা উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।  এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চ.বি. উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার ও চট্টগ্রামের অতিরিক্ত কর কমিশনার, কর অঞ্চল-৩, চট্টগ্রাম জনাব মো. আশরাফুজ্জামান। 

চ.বি. শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মিহির কুমার রায়ের সভাপতিত্বে উক্ত সমিতির ট্রেজারার ও সেমিনার উপ-কমিটির আহবায়ক জনাব আবদুল হকের পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মুয়াজ্জম হোসেন।  ক্যাম্প ও কর্মশালার ওয়ার্কিং সেসনে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন উপ-কর কমিশনার, কর অঞ্চল-৩, চট্টগ্রাম জনাব সুধাংশু কুমার সাহা। 

উপাচার্য তাঁর ভাষণে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এ প্রথমবারের মতো আয়কর ক্যাম্প ও কর্মশালা আয়োজন করার জন্য আয়োজকবৃন্দকে ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান।  তিনি বলেন, আয়কর ও রিটার্ণ জমা দেয়ার ব্যাপারে সরকারী চাকুরীজীবী থেকে সাধারণ মানুষ প্রত্যেকের কাছে কম-বেশি একটি ভীতিকর অবস্থা বিরাজ করে।  অথচ একটু সচেতন হলে এটি খুব সহজসাধ্য কাজ। 

তিনি বলেন, দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে বিবেকপ্রসূত হয়ে আয়কর প্রদান করা প্রতিটি সুনাগরিকের অন্যতম দায়িত্ব।  তবে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন এ আয়কর প্রদান ও রিটার্ণ ফরম পূরণ ও জমা দেয়ার কর্মকৌশল আরও সহজ ও বোধ্যগম্য করলে দেশের সাধারণ মানুষ এর প্রতি আরও আকৃষ্ট ও উৎসাহমূলক পরিবেশে এটিকে একটি নিয়মে পরিণত করতে সক্ষম হবেন। 

প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ব্যবস্থাপনায় বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকার বৃহত্তর জনগোষ্ঠীকে আয়কর প্রদানে উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা জোগাতে নানাবিধ ইতিবাচক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে, যা সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে এবং দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে দৃশ্যমান ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে। 

তিনি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধু তনয়া আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে দৃশ্যমান অবদান রাখার আহবান জানান।  মাননীয় উপাচার্য দু’দিন ব্যাপি এ ক্যাম্প ও কর্মশালার সার্বিক সাফল্য কামনা করে এর উদ্বোধন ঘোষণা করেন। 

উপ-উপাচার্য তাঁর ভাষণে সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, আয়কর প্রদানের ক্ষেত্রে অনেকেরই অজ্ঞতা রয়েছে।  এ আয়কর কর্মশালা অজ্ঞতাসমূহ নিরসনে বিশেষ ভূমিকা রাখবে এবং আয়কর প্রদান সহজতর করতে সহায়ক হবে মাননীয় উপ-উপাচার্য এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। 

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির কর্মকর্তাবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ, অফিসার সমিতির কর্মকর্তাবৃন্দ এবং অফিসপ্রধানবৃন্দসহ কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  উলে­খ্য, আয়কর ক্যাম্প সফল করতে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৩ এর ২৬ সদস্যের একটি টিম দু’দিন ব্যাপি এ কর্মশালায় করদাতাগণকে সহায়তা প্রদান করবেন। 



keya