৯:০১ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার | | ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

হাসপাতালে ৬৩ দিনের স্মৃতি এখনো তাড়া করে বেড়ায় আমাকে

০১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৫:৪৭ এএম | সাদি


সাদেক রিপন, কুয়েত প্রতিনিধি : ভাইয়া তুমি জানতে, পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চলে যাবে।  এই জন্য একদিন সকালে আমাকে বলেছিলে মৃত্যু হয়ে গেলে আর চিকিৎসা লাগবে না।  কিন্তু আমি বুজি নাই, তোমার সাধুরা বুজেছে ভাইয়া।  মৃত্যু নামক যন্তনা তোমাকে অনেক যন্তনা দিয়াছে, সেটা আমি দীর্ঘ ৬৩ দিন দেখেছি, কিন্তু বুজাতে পারি নাই তোমার সাধু সাধনাদেরকে। 

কুয়েত প্রবাসী মরহুম একরামুল হকের স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।  বুধবার ২৯ নভেম্বর রাত ৯ টায় জাতীয় শ্রমিকলীগ ফাহাহিল মহানগর শাখার উদ্যোগে জান্নাত হোটেলে প্রবাসী একরামুল হকের  শোক সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে এসব কথার বলেন, মরহুমের ছোট ভাই জাতীয় শ্রমিকলীগ ফাহাহিল মহানগর শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক। 

কান্না জড়িত কন্ঠে তিনি আরো বলেন, ১৯৯০ সাল হতে কুয়েতের বিমান বাহিনীতে কাজ করে আসছিলেন তিনি।  হার্ট ও কিডনী জনিত সমস্যা নিয়ে ২৫ই আগষ্ট মেলিটেরী হাসাপাতালে,২৬ই আগষ্ট ফরওয়ানি হাসপাতালে ১৩ই সেপ্টম্বর চেষ্ট হাসাপাতাল ভর্তি হন।  ৬৩ দিন কুয়েতের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।  এখানে চিকিৎসায় উন্নতি না হওয়ায়  দেশে নিয়ে গিয়ে ঢাকার একাধিক  হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়।  সর্বশেষ ফেনীতে ফেনীর হাট ফাউন্ডেশনে ১৭ই অক্টোবর  মারা যান তিনি ফেরা হলো আর প্রবাসে চলে গেলেন না ফেরার দেশে। 

জাতীয় শ্রমিকলীগ ফাহাহিল মহানগর শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের এর উপস্থাপনায় ,উক্ত শোক সভা ও দোয়া মাহফিলে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুয়েতে শ্রমিকলীগের সভাপতি হানিফ মিয়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুয়েতে শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল, আলম, এম ডি সেলিম প্রমুখ।  পরিশেষে মাওলানা মহিন উদ্দিন সোহাগের পরিচালনায় মরহুমের মাহফেরাত কামনা বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। 

Abu-Dhabi


21-February

keya