৪:২৭ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮, রোববার | | ৯ জ্বিলকদ ১৪৩৯


বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরাগান্ধী দুই দেশের বন্ধুত্বের বীজ বপন করেছিলেন

০৩ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:০৫ পিএম | জাহিদ


মুহাঃ দেলোয়ার হোসাইন, পিরোজপুর সংবাদদাতাঃ বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরাগান্ধী দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের বীজ বপন করে গেছেন। 

তিনি রোববার দুপুরে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া মজিদা বেগম মহিলা বিশ্ব বিদ্যালয় কলেজ মাঠে এক বিশাল সুধী সমাবেসে এ কথা বলেছেন। 

তিনি আরো বলেন ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর উৎসাহে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে ভারতীয় সৈনিকদের রক্তদান দুই দেশের ঐক্যের একটি বড় অধ্যায়।  

ভারত সরকারের অর্থায়নে  ভান্ডারিয়া পৌরসভায় সুপেয় পানি প্রকল্পের কাজের উদ্বোধন শেষে  সমাবেশ বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন বাংলাদেশে বহুমাতৃক সংস্কৃতি দেখে আমি আপ্লুত।  ইন্ডিয়া আপনাদের  সহযোগীতা করেতে সব সময় প্রস্তুত। মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু ভারতের এক জন ভাল বন্ধু উল্লেখ করে হাই কমিশনার বলেন আমরা একে অপরের পাশে থাকবো বলে ভারত সরকারের অর্থায়ণে বাংলাদেশে ১ হাজার ১ শত কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ আগামী ২০১৮ সালে শেষ হবে। 

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী কিছু দিন আগে ঢাকায় ১ শত ২০ কোটি টাকার ২৪ টি প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন এরই আওতায় ভান্ডারিয়া পৌরসভায় সুপেয় পানি প্রকল্পের পূর্বের বরাদ্ধ কৃত ১১ কোটি ৫০ লক্ষ টাকার সাথে এবারে আরো ২ কোটি ৮৮ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়।  । 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিধি হিসেবে  পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন বলেন, আমরা ভান্ডারিয়াবাসী দলমত ধর্ম নির্বিশেষে একত্রে বসবাস করছি।  তাই দেশের উন্নয়নের জন্য পুরানো রাজনীতিবাদ দিয়ে নতুন রাজনীতির ধারায় চলতে হবে। 

স্বাধীনতার পূর্বের রাজনীতি আর বর্তমান রাজনীতি এক নয়।  আমি উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী।  আমি আজ গর্বিত সব সরকারের আমলে ভান্ডারিয়ায় যে পরিমান উন্নয়ন হয়েছে অন্য কোন উপজেলায় এ উন্নয়ন হয়নি। 

আসন্ন নির্বাচন সম্পের্কে মন্ত্রী বলেন, আপনারা যাকে খুশি তাকে ভোট দিবেন।  আমাকে ভোট দিতে বলছি না।  কিন্তু একৌবদ্ধ্য ভাবে দলমত নির্বিশেষে কাজ করতে হবে। 

অনুষ্ঠানে পিরোজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজের সভাপতিতে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মো: খায়রুল আলম সেখ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল,উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পৌরসভার প্রশাসক শাহীন আক্তার সুমী, জেপি নেতা গোলাম সরোয়ার জমাদ্দার, টুঙ্গীপাড়ার আওয়ামীলীগ নেতা হাফিজুর রশীদ তারিক জমাদ্দার ও ভান্ডারিয়া উপজেলা পূজা পরিষদ সভাপতি কিরণ চন্দ্র বসু। 

ভারতীয় হাই কমিশনানের ফাস্ট সেক্রেটারী নবনিতা চক্রবর্তী ও ইত্তেফাকের প্রকাশক তারিন হোসেন  উপস্থিত ছিলেন।