৪:২৮ পিএম, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০




সাতক্ষীরার শিকড়ী মাধ্যঃ বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের নিয়োগে অনিয়ম

০৯ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:৪৫ এএম | নিশি


জাহিদ হোসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য হলে অন্য শিক্ষকদের মধ্য হতে যিনি বয়সে সবচেয়ে সিনিয়র তাকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।  তবে সবচেয়ে সিনিয়র যিনি আছেন তিনি দায়িত্বভার গ্রহণ করতে অনিচ্ছুক হলে তার পর যিনি সিনিয়র থাকেন তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়।  কিন্তু সকল নিয়মনীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ৩ জন সিনিয়র শিক্ষক কোনরকম অবহিত না করে তাদেরকে বাদ দিয়ে সাতক্ষীরা সদরের শিকড়ি বি কে ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে নবীন শিক্ষক পলাশ কুমারকে।  বিষয়টি নিয়ে শিক্ষক ও অভিভাবক মহলে চরম অসন্তোস বিরাজ করছে। 

একাধিক শিক্ষক ও এলাকাবাসী জানায়, গত বুধবার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বি কে ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতিনিধি ছাড়াই ম্যানেজিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।  বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদ শুন্য থাকায় ও বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ওহিদুজ্জামান নিজে প্রধান শিক্ষক প্রার্থী হওয়ায় তিনি ভারপ্রাপ্তের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেন।  সে কারনে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব প্রদানের জন্য ম্যানেজিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।  সেখানে বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মিজানুর এস এম, নাছরিন পারভিন, আব্দুল হামিদ কে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক না করে আইন কে তোয়াক্কা না করে পলাশ কুমারকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।  অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম নিজের পছন্দের প্রার্থীকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতেই অন্যান্য শিক্ষকদের সাথে পরামর্শ ছাড়াই এই অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছেন। 

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম বলেন, সকল সিনিয়র শিক্ষককে দায়িত্ব নেওয়ার বিষয়ে জানানো হয়েছিল।  তবে তারা দায়িত্ব গ্রহণ করতে অপারগতা প্রকাশ করায় পলাশ কুমারকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।  

নিয়ম অনুযায়ী যাতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ হয় সে ব্যাপারে জেলা প্রশাসকসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন শিক্ষক ,সচেতন মহল ও এলাকাবাসি।