১:৪৯ পিএম, ২০ জুন ২০১৮, বুধবার | | ৬ শাওয়াল ১৪৩৯

South Asian College

ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে আন্তর্জাতিক এসএমই মেলা-২০১৭ এর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:২৪ পিএম | মুন্না


এসএনএন২৪.কম : দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি উদ্যোগে ৩ (তিন) দিনব্যাপী “আন্তর্জাতিক ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) মেলা-২০১৭” এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ১০ ডিসেম্বর দুপুরে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি।  সভাপতিত্ব করেন চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম।  এ সময় চেম্বার সিনিয়র সহ-সভাপতি ও মেলা কমিটির কনভেনার মোঃ নুরুন নেওয়াজ সেলিম, কো-কনভেনার ও সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, মেলা কমিটির সদস্য ও চেম্বার পরিচালকবৃন্দ মোঃ অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), এম. এ. মোতালেব, মাহবুবুল হক চৌধুরী (বাবর), অঞ্জন শেখর দাশ ও মোঃ আবদুল মান্নান সোহেল, অন্যান্য পরিচালকবর্গ কামাল মোস্তফা চৌধুরী, জহিরুল ইসলাম চৌধুরী (আলমগীর) ও সরওয়ার হাসান জামিল, জাপানের অনারারী কনসাল মোঃ নুরুল ইসলাম, চট্টগ্রামে নিযুক্ত রাশিয়ার ভারপ্রাপ্ত কনসাল জেনারেল ভিয়াছেসলেভ জাখারোভ, সরকারী উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন সেক্টরের ব্যবসায়ী নেতৃবর্গ, মেলায় অংশগ্রণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিনিধিগণ এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।   

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প মেলাকে খুবই উৎসাহব্যাঞ্জক উল্লেখ করে সরকারের সুষ্ঠু পরিকল্পিত নীতিমালা ও এসএমই শিল্পের উন্নয়নের মাধ্যমে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং অর্থনীতি আরো মজবুত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন।  তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন-চট্টগ্রামে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, কর্ণফুলী টানেলসহ অন্যান্য বড় প্রকল্পগুলির বাস্তবায়ন ও বিনিয়োগ হলে এখানে ছোট-বড় অনেক শিল্প কারখানা গড়ে উঠবে যা চট্টগ্রামের হারানো ব্যবসায়িক ঐতিহ্য ও নিয়ন্ত্রণ ফিরে আসবে।  ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকে বৃহৎ শিল্প এবং উদ্যোক্তা সৃষ্টির পথ প্রদর্শক আখ্যায়িত করে দেশের অর্থনীতিকে স্বাবলম্বী হতে এ খাত উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে বলে জানান এবং এ ধরণের মেলা আয়োজন, এসএমই উদ্যোক্তারা কিভাবে ব্যাংকিং সাহায্য পাবে ও কি ধরণের গুণগত পণ্য তারা তৈরী করছে তা প্রদর্শনীর সুযোগ তৈরী করে দেয়ার জন্য চেম্বারের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক  ঘোষিত চট্টগ্রামকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় অর্থনৈতিক কর্মকান্ডের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করতে বিভিন্ন মেলা আয়োজন করাসহ সরকারের সহায়ক হিসেবে অত্র চেম্বার নিরলস প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।  তিনি চলমান এবং প্রস্তাবিত প্রকল্পগুলি বাস্তবায়ন হলে বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শহর চট্টগ্রাম হবে মন্তব্য করে এসব প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নে মন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন। 

চেম্বার সভাপতি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকে দেশের অর্থনীতির প্রাণ এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের চালিকাশক্তি উল্লেখ করে এ খাতের বিকাশ এবং সংরক্ষণের উপরেও গুরুত্বারোপ করেন।  সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ নুরুন নেওয়াজ সেলিম দেশে শিল্পায়নের প্রসার, কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচন, নিম্নবিত্তের জনগণের অবস্থার উন্নয়নে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের বিশাল অবদান রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। 

তিনি তথ্য প্রকাশ করে বলেন-দেশের মোট কর্মসংস্থানের শতকরা ৮০-৮৫ ভাগ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে হয়ে থাকে।  যার ফলে জিডিপি-তে এ সেক্টরের অবদান ২৫% এর বেশী।  সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ অর্থ উপার্জন এ মেলার উদ্দেশ্য নয় উল্লেখ করে বলেন-বরং ব্যবসা-বাণিজ্য তথা ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের উন্নয়ন করার লক্ষ্যে অত্র চেম্বার এ মেলা আয়োজন করেছে।  তিনি ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ছোট-মাঝারি-বড় সকল ধরণের মেলা আয়োজন করে বিভিন্ন খাতের শিল্পোদ্যোক্তাগণ দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখতে পারেন বলে মন্তব্য করেন। 

উল্লেখ্য, এই মেলা আগামী ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে।  মেলা প্রতিদিন সকাল ১০.০০ টা থেকে রাত ৮.০০ টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।