১:৩৭ পিএম, ২০ জুন ২০১৮, বুধবার | | ৬ শাওয়াল ১৪৩৯

South Asian College

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের চেয়ারম্যানের পদত্যাগ

১১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৩:০৫ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : অনিয়ম, দুর্নীতির ও নানা জালিয়াতির ঘটনায় জর্জরিত এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাসাত আলী পদত্যাগ করেছেন।  নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তমাল এসএম পারভেজ। 

রবিবার ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভায় এসব পরিবর্তন হয়। 

সভায় ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালককে (এমডি) দেওয়ান মুজিবর রহমানকে বাধ্যতামূলক তিন মাসের ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।  ভারপ্রাপ্ত এমডির দায়িত্ব দেয়া হয়েছে কাজী মো. তালহাকে।  পরিচালনা পর্ষদের অন্যান্য কমিটির প্রধানরাও পদত্যাগ করেছেন।  নতুন নির্বাচন হয়েছে সব কমিটিতে। 

যাত্রা শুরুর চার বছরেই ফারমার্স ব্যাংকের মতো ধুকতে থাকা এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকে পরিচালনা পর্ষদও অবশেষে ঢেলে সাজানো হল। 

সভায় পরিচালনা পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে তৌফিক রহমান চৌধুরী পদত্যাগ করলে ওই পদে নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ শহীদ ইসলাম।  নির্বাহী কমিটির (ইসি) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আবু বকর চৌধুরী।  ওই পদে ছিলেন মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।  নুরুন নবী অডিট কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করায় সেখানে নির্বাচিত হয়েছেন রফিকুল ইসলাম মিয়া আরজু।  এছাড়া রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন আদনান ইমাম।  ওই পদে ছিলেন সৈয়দ মুন্সেফ আলী।  এমডির দেওয়ান মুজিবুর রহমানের ছুটি কার্যকর হলে সেখানে ভারপ্রাপ্ত এমডি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন কাজী মো.তালহা। 

নতুন চেয়ারম্যান তমাল এস এম পারভেজ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ব্যাংকের ভাবমূর্তি রক্ষায় এ পরিবর্তন এসেছে।  আমরা ব্যাংকটিকে ভালো করতে চাই, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সহযোগিতা ছাড়া এটা সম্ভব নয়। ’

গত সপ্তাহে বাংলাদেশ ব্যাংক বেসরকারি এই ব্যাংকটির এমডি মুজিবরকে অপসারণ করার পর তিনি আদালতে গিয়েছিলেন, তাতে হাই কোর্টে তার অপসারণের আদেশ স্থগিত করে। 

তার কয়েক দিনের মাথায় ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ে পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভায় মুজিবরকে ছুটিতে পাঠানোসহ অন্যসব পরিবর্তন হয়। 

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের মতোই ২০১৩ সালে যাত্রা শুরু করেছিল ফারমার্স ব্যাংক; ঋণ কেলেঙ্কারিতে ধুকতে থাকার মধ্যে সম্প্রতি ব্যাংকটির চেয়ারম্যান মহীউদ্দীন খান আলমগীর পদত্যাগ করেন। 

ফারমার্স ও এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক নিয়ে সম্প্রতি সংসদীয় কমিটিতে অর্থ মন্ত্রণালয় একটি প্রতিবেদন দিয়েছিল। 

তার পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সুপারিশে বলা হয়েছিল, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক ও ফারমার্স ব্যাংক পরিচালনায় অনিয়ম ও দুর্নীতি সম্পর্কে অধিকতর তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি নিশ্চিত করে ব্যাংকগুলোকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করে গ্রাহকদের মধ্যে আস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে।