১১:৩৪ পিএম, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৯ রবিউস সানি ১৪৪০




‘‘এসএসএফের আপত্তিতে’ খালেদার সমাবেশস্থলে তালা’

০২ জানুয়ারী ২০১৮, ০৩:২০ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বেগম খালেদা জিয়ার সমাবেশস্থল ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের গেইট তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে।  সুপ্রিম কোর্ট দিবসে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সর্বোচ্চ আদালতে যাবেন বলে প্রতিষ্ঠানটির লাগোয়া ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে সমাবেশে রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তায় থাকা এসএসএফ আপত্তিতে এই কাজ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএনপি। 

মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলীয় এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 


১ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছে বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল।  আর পরদিন সমাবেশের আয়োজন করেছিল ছাত্র সংগঠনটি।  এই সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে খালেদা জিয়ার উপস্থিত থাকার কথা ছিল। 

বিএনপি মহাসচিব জানান, তাদেরকে বলা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টে রাষ্ট্রপতির একটি প্রোগ্রাম আছে।  তাই তারা নিরাপত্তার স্বার্থে ছাত্র সমাবেশ করতে রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এসএসএফ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে এই সমাবেশে  আপত্তি জানিয়েছে। 

ফখরুল বলেন, ‘ছাত্র সমাবেশকে ঘিরে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেয়া হয়েছিল।  কিন্তু সকাল ১০ টার দিকে ছাত্র সমাবেশস্থল রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে।  অথচ অনুমতির জন্য প্রায় এক মাস আগে আবেদন করা হয়েছে।  হল কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশ অনুমতিও দিয়েছিল। ’

অনুমোদনকৃত অনুষ্ঠান বন্ধ করার চেষ্টা ও গড়িমসি করা গণতান্ত্রিক অধিকার খর্ব করার শামিল বলে মন্তব্য করেন ফখরুল।  বলেন, ‘এতে আরো সুস্পষ্ট প্রমাণিত হয় এই সরকারের আমলে রাজনৈতিক দলগুলোর কর্মকাণ্ড পরিচালনা করার কোন সুযোগ নেই। ’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমানে যারা সরকারে আছে তারা কেউ ভোটে নির্বাচিত হয়নি।  তাই তারা সামনে যে নির্বাচন আসছে তাতে বিরোধী দল অংশগ্রহণ করুক তা চায় না।  কারণ বিভিন্ন জরিপে এসে সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ক্ষমতাসীনরা জয়ী হতে পারবে না। ’

‘তাদের আসল উদ্দেশ্য বিএনপি যে সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে না পারে।  এবং নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন যাতে না হয় সেজন্য গ্রাউন্ড তৈরি করছে। ’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার সুযোগ আছে বলেও মনে করেন না ফখরুল।  তবে খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে নির্বাচন হবে না-এই বিষয়টিও তুলে ধরেন তিনি। 

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, আহমদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক সরফত আলী সপু, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। 

এদিকে সকাল থেকে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অনুষ্ঠাস্থলের বাইরে অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিচ্ছে। 



keya