৬:২১ পিএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৮ শা'বান ১৪৩৯

South Asian College

গোয়ালন্দে চরমপন্থী সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুইজন গুলিবিদ্ধ

১১ জানুয়ারী ২০১৮, ০৬:০৭ পিএম | মুন্না


আবুল হোসেন, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি : বৃহস্পতিবার রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে চরমপন্থী সন্ত্রাসীদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আলতাফ হোসেন (৩৮) নামে একজনকে হত্যা করতে এসে ব্যর্থ হয়েছে সন্ত্রাসীরা।  এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুইজন গুলিবিদ্ধ হন। 

ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে গোয়ালন্দ ও রাজবাড়ী সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী অন্তার মোড় বাজারে।  এ ঘটনার পর এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

গুলিবিদ্ধরা হলেন গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চর বরাট গ্রামের মৃত ইয়াদ আলী বিশ্বাসের ছেলে করম আলী বিশ্বাস (৫৫) ও রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের সাভার গ্রামের ফজের আলী বেপারীর ছেলে ভ্যান চালক ইসলাম বেপারী (৪৫)। 

ঘটনার কিছুক্ষণ পরই খবর পেয়ে রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশের দুটি পৃথক দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এলাকাবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে।  

স্থানীয় কয়েকজন জানান, গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চর বরাট গ্রামের গেদা শেখের ছেলে আলতাফ হোসেন উপজেলার সীমান্তবর্তী অন্তার মোড় বাজারের একটি চায়ের দোকানে বসে চা পান করছিল। 

দুপুর ১২টার দিকে অজ্ঞাত দুই অস্ত্রধারী যুবক চায়ের দোকানের সামনে গিয়ে আলতাফকে বাইরে আসার জন্য ডাকে।  বিপদ আঁচ করতে পেরে সে দৌঁড়ে পালানো চেষ্টা করে।  কিছুদুর যেতেই আলতাফকে ঝাপটে ধরে গুলি করে।  কিন্তু ধস্তাধস্তিতে গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে পাশের একটি বন্ধ দোকানের সার্টারের গিয়ে লাগে।  সেখান থেকে আলতাফ দৌড়ে পালায়। 

গুলির শব্দে এলাকার কয়েক’শত লোকজন দুর্বৃত্তদের ঘিরে ফেলার চেষ্টা করলে দুর্বৃত্তরা অন্তত ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে পদ্মা নদীর দিকে যায়। 

এসময় দুর্বৃত্তদের ছোঁড়া গুলিতে দুইজন গুলিবিদ্ধ হন।  সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে জেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার আছাদুজ্জামান ও গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মির্জা আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে পুলিশের দুটি দল।  পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটি গুলির খোসা ও কয়েকটি জুতা উদ্ধার করেছে। 

অন্তার মোড় এলাকার ইদ্রিস আলী মোল্যা জানান, ভ্যান চালক ইসলাম চোখের উপরে গুলিবিদ্ধ হয়েছে এবং করম আলী বুকে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।  তাদেরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

সহকারী পুলিশ সুপার আছাদুজ্জামান এলাকাবাসীকে আতঙ্কগ্রস্থ না হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘পরে ধারনা করা হচ্ছে চরমপন্থীদের আধিপত্য বিস্তার ও আভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে ঘটনাটি ঘটেছে। 

এলাকাবাসী জড়ো হওয়ায় দূর্বৃত্তদের মিশন সফল হয়নি।  এ সময় এলাকাবাসী এলাকায় একটি অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের দাবি করলে তিনি বলেন, ‘অন্তার মোড় এলাকায় একটি পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।  আশাকরি তা করা সম্ভব হবে।