৭:৫৭ এএম, ২১ জুলাই ২০১৮, শনিবার | | ৮ জ্বিলকদ ১৪৩৯


পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে মিলন বাঁচতে চায়

১২ জানুয়ারী ২০১৮, ০৫:০৮ পিএম | নিশি


সাকলাইন শুভ, বড়াইগ্রাম(নাটোর) প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালের স্বত্বাধিকার ডা: সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর ভুল চিকিৎসা প্রদানের ফলে বিভিন্ন হাসপাতালে দৌড়াতে দৌড়াতে ও তার ব্যয় বহন করতে দিশেহারা কৃষক মিলন ও তার পরিবার। 

মিলন প্রামানিক(২৫) বড়াইগ্রাম উপজেলার চান্দাই ইউনিয়নের চান্দাই গ্রামের অাকবর প্রামানিকের ছেলে।  অাকবর ও তার ছেলে মিলনের সংসার চলে অন্যের জমিতে কামলা হিসেবে কৃষি কাজ করে।  পরিবার থেকে ফোন করে জানালে সরজমিনে তার বাড়িতে গিয়ে যানা যায় মিলনের পেটে অস্বাভাবিক ব্যথার কারনে তাকে ১৫ অাগষ্ট বনপাড়া পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, সেখানে তাকে মোট (৯) নয় রকম টেস্ট (পরিক্ষা নিরিক্ষা) করে তার Hernia (হার্নিয়া) রোগ হয়েছে বলে যানায় কর্তব্যরত ডাক্তার।  পরে ১৬ অাগষ্ট রাত দুইটায় বনপাড়া পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালের স্বত্বাধিকার ডা: সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী ও ডা: মাহবুবুর রহমান অপারেশন করেন মিলনের।  তার পরদিন থেকে মিলনের অবস্থা অারো অবনতি হতে থাকে,পেটের ব্যাথা অারো বারতে থাকে।  ১৯ তারিখ পর্যন্ত পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি থাকার পরেও কোন উন্নতি না হলে মিলনকে রাজশাহীর কোন হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। 

ভুক্তভোগী পরিবার বলেন পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে সর্বমোট প্রায় ২০,০০০/= (বিশ হাজার) টাকা খরচ হয়। 

পরে ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রাজশাহীতে রোগীকে ভর্তি করলে সেখানে টেষ্ট (পরীক্ষা নিরিক্ষা) করে যানা যায় রোগী মিলনের পেটের নাড়িতে প্যাঁচ লেগেছে ও পিত্তি থলেতে পাথর হয়েছে এবং Hernia (হার্নিয়া) অপারেশনে যে রগে হয়েছে সে রগ না কেটে অন্য রগ কাটা হয়েছে বলে চিকিৎসক জানান। 

তার পর বিষয়টার সত্যতা জানার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানেও কর্তব্যরত চিকিৎসক একই কথা বলেন।  মিলনের বাবা অাকবর প্রামানিক জানান বিভিন্ন যায়গায় ধার ও সাহায্য সহযোগীতা নিয়ে অামরা ৭০,০০০ (সত্তর হাজার) টাকা জোগার করেছিলাম তা শেষ হয়ে যায় ফলে চিকিৎসা না করাতে পেরে অামার ছেলেকে বাড়িতে নিয়ে অাসি। 

কয়েক মাস যাবৎ মিলন এখন চিকিৎসা ছারা বাড়িতে পরে অাছে,খাবার ও ঔষধ পর্যন্ত কেনার টাকা নাই তার পরিবারের।  হাট বাজারের দোকান ও সাধারন জনগনের থেকে হাত পেতে সাহায্য নিয়ে মিলনের পরিবারের দিন যাচ্ছে। 

মিলনের মা বলেন ডা: সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী অামার ছেলে মিলনের ভূল চিকিৎসা করার কারনে  অাজ মৃত্যুর পথযাত্রী,মিলন কে বাঁচাতে স্হানীয় সংসদ সদস্য,চেয়ারম্যান সহ বৃত্তবান সকলের সহায়তা সহ এর ন্যয্য বিচার চায় এই অসহায় মা। 

উল্লেখ্য অতিতেও বনপাড়া পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে বিভিন্ন রোগীর ভূল চিকিৎসা প্রদান ও নারী বিষয়ক নানা স্ক্যানডেল রয়েছে হাসপালের স্বত্বাধিকার ডা: সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে। 



keya