৮:১০ এএম, ২২ আগস্ট ২০১৮, বুধবার | | ১০ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


চবিতে সাংবাদিকদের উপর হামলা, গাড়ি ভাংচুর বৃহস্পতিবার প্রতিবাদ সমাবেশ

২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:২৬ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের হামলার প্রতিবাদে ২২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় প্রেসক্লাব চত্বরে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন-সিইউজের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ।  মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টিভি ইউনিটের সভা থেকে সিইউজে এই কর্মসূচি ঘোষণা করে।  সভায় সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যর্থতাকে দায়ী করা হয়। 

এ সময় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপাচার্যের ভুমিকার অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকেই তদন্ত কমিটি গঠন করে হামলার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়।  পাশাপাশি হামলার ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ আহবান জানানো হয়।  একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয়ে অবরোধ আহবানকারি ছাত্রলীগ নেতা দাবীদার আলমগীর টিপুসহ যারা সাংবাদিকদের উপর হামলা করেছে তাদেরকে ছাত্রলীগ থেকে বহিস্কারসহ তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। 

সিইউজে টিভি ইউনিট প্রধান অনিন্দ্য টিটো’র সভাপতিত্বে ডেপুটি ইউনিট প্রধান মাসুদুল হকের সঞ্চালনায় জরুরি সভায় বক্তব্য রাখেন সিইউজের সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, বিএফইউজের সহ সভাপতি শহীদ উল আলম, সিইউজের সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, সাবেক সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব তপন চক্রবর্তী, সিইউজের অর্থ সম্পাদক কাশেম শাহ, নির্বাহী সদস্য উত্তম সেন গুপ্ত,

সিনিয়র সাংবাদিক শামসুল হক, চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের আঞ্চলিক সম্পাদক কামাল পারভেজ, সিইউজে সদস্য অনুপম পার্থ, আরিফুর রহমান সবুজ, পার্থ প্রতিম বিশ্বাস, ইফতেখার ফয়সাল, মৃন্ময় বিশ্বাস, টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শফিক আহমেদ সাজীব, সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুন পাল, দপ্তর সম্পাদক বাসু দেব প্রমুখ।  সভায় ঘটনার বর্ণনা দেন হামলার শিকার হওয়া সাংবাদিকরা। 

সভায় বক্তারা পেশাগত দায়িত্বপালন কালে সাংবাদিকদের উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের।  কিন্তু প্রশাসন তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে।  আক্রান্ত সাংবাদিকরা বারবার প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করার পরও প্রশাসন সহয়তা প্রদানে ব্যর্থ হয়েছে বলে সভায় অভিযোগ করা হয়। 

সভায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের সমালোচনা করে সাংবাদিক নেতারা ছাত্রলীগকে নিয়ন্ত্রনে রাখতে প্রয়োজনীয় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার আহবান জানান।  পাশাপাশি নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের নাম ব্যবহার করে ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসী কার্যক্রম সংঘটনকারী আলমগীর টিপুসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের আহবান জানান সিইউজে নেতারা।  অন্যথায় চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা দিতে বাধ্য হবে বলেও সভায় হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।