৯:০১ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শনিবার | | ১১ মুহররম ১৪৪০


চট্টগ্রাম মহানগরীতে মাদক ব্যবসায়ী গ্রুপের ০৯ সদস্যকে গ্রেফতার

০৭ মার্চ ২০১৮, ০১:২৫ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম মহানগরীর বরিশাল কলোনী সংলগ্ন আইস ফ্যাক্টরী রোড এলাকা থেকে সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী গ্রুপের ০৯ সদস্যকে গ্রেফতার ও ৫৯১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৭। 

বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম কারণ হচ্ছে মাদকাসক্তি।  মাদকাসক্তির ভয়াল থাবা প্রতিনিয়ত আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে ফেলছে।  মাদকদ্রব্যের টাকা জোগাড়ের জন্য মাদকাসক্ত ব্যক্তিরা বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক ও অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে।  এর প্রেক্ষিতে যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন দেশব্যাপী বিভিন্ন মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে আসছে। 

দেশব্যাপী মাদকদ্রব্যের বিস্তাররোধ এবং দেশের যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে র‌্যাবের মাদক বিরোধী অভিযান দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে। 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৭ হতে অদ্য ০৭ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ৩৬৮ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৪৯ টি ম্যাগাজিন এবং ৫,৫৬১ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৭৬ লক্ষ ১৮ হাজার ৯৭৮ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩৪ হাজার ৩৩৮ বোতল ফেন্সিডিল, ২,৭৮৮ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৫ লক্ষ ৯৭ হাজার ৫৯৫ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ৭৭২ কেজি ২৮০ গ্রাম গাঁজা, ৩৬০ গ্রাম হেরোইন এবং ৪০০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করেছে। 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, একটি সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্র চট্টগ্রাম মহানগরীর সদরঘাট থানাধীন বরিশাল কলোনী সংলগ্ন আইস ফ্যাক্টরী রোড এলাকায় অবস্থান করছে।  উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ০৭ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখ রাতে স্কোয়াড্রন লিডার শাফায়াত জামিল ফাহিম, পিপিএম এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে মাদক ব্যবসায়ীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ১।  মোঃ ফয়সাল (২০), পিতা-এনায়েত উল­াহ, গ্রাম-দক্ষিন জগদানন্দ, মকবুল চৌধুরীর হাট, থানা-কবির হাট, জেলা-নোয়াখালী, এ/পি-আরএস টাওয়ার, আইস ফ্যাক্টরী রোড, সদরঘাট, সিএমপি চট্টগ্রাম, ২।  মোঃ জাকির আলম (২৮), পিতা-আবুল কালাম, গ্রাম-সাহাপুর, লস্কর হাট, ফেনী, এ/পি- আরএস টাওয়ার, আইস ফ্যাক্টরী রোড, সদরঘাট, সিএমপি চট্টগ্রাম,

৩।  মোঃ অলি (৪২), পিতা- মৃত সিদ্দিক খালাসী, গ্রাম-বাস গাড়ির চর, থানা-সদর, জেলা- চাঁদপুর, এ/পি- পুরাতন রেল স্টেশন, কোতয়ালী, সিএমপি চট্টগ্রাম, ৪।  মোঃ সুমন (৩০), পিতা- আবুল হোসেন, গ্রাম-বর্তারিয়া, থানা-মিরসরাই, জোল-চট্টগ্রাম, ৫।  মোঃ নুর ইসলাম (৩৫), পিতা- মোঃ আমিন মাঝি, গ্রাম- দৌলতখান, থানা-লালমোহন, জেলা-ভোলা, এ/পি- ২৪ নং ওয়ার্ড, মোঃ শফিউলের বাড়ি, আগ্রাবাদ. ডবলমুরিং, সিএমপি চট্টগ্রাম, ৬।  মোঃ কাশেম (৩২), পিতা- মৃত শিরি মিয়া, গ্রাম- কোরবানপুর, থানা-মুরাদনগর, জেলা-কুমিল­া, এ/পি- পুরাতন রেল স্টেশন (ভাসমান), কোতয়ালী, সিএমপি চট্টগ্রাম, ৭।  কালু মীর হোসেন (৩০), পিতা- মৃত বজলুর রহমান, গ্রাম- ভোলা কোর্ট, থানা-লাঙ্গল কোর্ট, জেলা-কুমিল­া, ৮।  মোঃ নুরুল ইসলাম (৩৭), পিতা- নুরুল হক, গ্রাম- দক্ষিণ আনন্দপুর, থানা- ফুলগাজী, জেলা- ফেনী, ৯।  মোঃ আব্দুল খালেক (২২), পিতা- আব্দুর রউফ, গ্রাম- ধলিয়া, থানা- ফুলগাজী, জেলা-ফেনীদেরকে আটক করে। 

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে তাদের দেখানো মতে ঘটনাস্থল তল­াশী করে ০২টি প্লাস্টিকের বস্তার মধ্যে মোট ৫৯১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারসহ আসামীদেরকে গ্রেফতার করা হয়।  গ্রেফতারকৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা পরস্পর যোগসাজোশে একটি সিন্ডিকেট এর মাধ্যমে উক্ত ফেন্সিডিল ফেনী থেকে নিয়ে আসে এবং উক্ত এলাকায় পাইকারী ও খুচরা বিক্রয় করে আসছে।  উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মূল্য ০৫ লক্ষ ৯১ হাজার টাকা। 

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদক সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ১৯৯০ (সংশোধনী/২০০৪) এর ১৯(১) টেবিলের ৯(খ)/২৫ ধারা মোতাবেক চট্টগ্রাম মহানগরীর সদরঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।