৯:১৪ এএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০




পিরোজপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

০৫ এপ্রিল ২০১৮, ০৪:৫৮ পিএম | জাহিদ


মুহাঃ দেলোয়ার হোসাইন, পিরোজপুর সংবাদদাতা  : পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিল্লুর রহমান বৃহস্পতিবার  স্ত্রী হত্যার দায়ে  স্বামী কামাল হোসেন কে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দেন।  দন্ডপ্রাপ্ত কামাল হোসেন জেলার মঠবাড়িয়া  উপজেলার মানিকখালী গ্রামের আঃ মালেকের পুত্র।  পিরোজপুর জেলা জজ আদালতের পিপি খান মোঃ আলাউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

আদালতের নথি সূত্রে জানা গেছে, জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার  কবুতরখালী গ্রামের আব্দুর রহমান ফরাজীর কন্যা সীমা আক্তার এর সাথে ২০০৪ সালে  কামাল হোসেনের বিয়ে হয়।  ২০০৫ সালের ২৪ জানুয়ারী রাত ৯ টার দিকে কামালের  সাথে তার স্ত্রী সীমার ঝগড়া হয়।   এক পর্যায়ে কামাল তার স্ত্রীকে লাঠি দিয়ে পেটায়।  এতে সে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।  পরে সে মৃত সীমার গলায় ওড়না বেধে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।  এর পর কামাল সীমার পিতাকে খবর দেয়  সীমা আত্মহত্যা করেছে।  

বিষয়টি পুলিশ খবর পেয়ে সীমার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পিরোজপুর মর্গে পাঠায়।  এবং মঠবাড়িয়া থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করে।  ময়নাতদন্তে আঘাত জনিত কারণে সীমার মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। 

এরপর সীমার পিতা আঃ রহমান বাদী হয়ে ওই বছরের ৮ জুন কামাল ও তার মা রওশন আরাকে আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি  হত্যা মামলা দায়ের করেন।   তদন্ত শেষে পুলিশ শেষে  কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র জমাদেন।  আর কামালের মাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন।   সাক্ষ্য প্রমানে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় আদালত কামাল হোসেন কে এ দন্ডদেন।   আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন দেলোয়ার হোসেন। 



keya