৭:৩৪ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ জ্বিলকদ ১৪৩৯


সরিষাবাড়ীতে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ায় পুরুষ লিঙ্গ কর্তন গ্রেফতার-১

১১ এপ্রিল ২০১৮, ০৩:৪৯ পিএম | নকিব


জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ায় ইউসুফ আলী নামে যুবকের পুরুষ লিঙ্গ কর্তনের ঘটনা ঘটেছে।  উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের বিলপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  সোমবার রাতে ইউসুফ আলীর বাবা তারা মিয়া বাদী হয়ে শাহানাজ বেগমকে আসামী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।  ওই রাতেই শাহানাজ বেগমকে (৫০) গ্রেফতার করে পুলিশ। 

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের ডোয়াইল বিলপাড় গ্রামের তারা মিয়ার ছেলে ইউসুফ আলীর (২০) সাথে প্রতিবেশী কালু মুন্সীর মেয়ের সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে।  এক পর্যায়ে মেয়ের মা শাহানাজ বেগমের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে বিয়ের প্রস্তাব দেয় ইউসুফ আলী।  এ কারনে বিয়ে না দেয়ার অজুহাতে দুরের আত্বীয় বাড়িতে মেয়েকে লুকিয়ে রাখে শাহানাজ বেগম।  এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে ইউসুফ আলী। 

মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে মোবাইল ফোনে ইউসুফ আলীকে তার বাড়িতে ডেকে নেয় শাহানাজ বেগম।  বাড়ীতে যাওয়ার পড়ে শাহানাজ বেগমের সাথে তুমুল তর্কবির্তক, হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।  হাতাহাতির এক পর্যায়ে শাহানাজ বেগম ধারালো ছুরি বের করে ইউসুফ আলীর পুরুষ লিঙ্গ কেটে ফেলে।  এ ঘটনার পর ইউসুফ আলীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে প্রথমে তাকে সরিষাবাড়ী হাসপাতাল ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। 

সোমবার রাতে তারা মিয়া বাদি হয়ে শাহানাজ বেগমকে আসামী করে মামলা দায়ের করে।  ওই রাতেই শাহানাজ বেগমকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করে পুলিশ। 

এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই মতিউর রহমান জানান, পুরুষ লিঙ্গ কর্তনের ঘটনায় অভিযোগ পেয়ে আসামী শাহানাজ বেগমকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।