১১:৪৬ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার | | ৮ সফর ১৪৪০


চসিক কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন খালেদ চান্দগাঁও সমিতির উদ্দ্যগে দুবাইতে সংবর্ধিত

১২ এপ্রিল ২০১৮, ০৬:০৩ পিএম | জাহিদ


এম এনাম হোসেন, আরব আমিরাত প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আওতাধীন ৪নং চান্দগাঁও ওয়ার্ডের কমিশনার, নগর পরিকল্পনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ সাইফুকে দুবাইতে সংবর্ধিত করা হয়েছে। 

দুবাইস্থ চান্দগাঁও সমিতির উদ্দ্যগে ও দুবাই বিজিনেসম্যান ফোরামের অন্যতম নেতা, বাংলাদেশী কমিউনিটির অত্যন্ত জনপ্রিয় শরাফ উদ্দিন রেষ্টুরেন্ট এন্ড গ্রুপের চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোহাম্মদ এয়াকুব সৈনিক’র তত্বাবধানে এই সংবর্ধনা সভার আয়োজন করা হয়। 

উক্ত সভায় সংবর্ধিত অথিতি চান্দগাঁওবাসীর প্রিয়নেতা কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন বলেন, প্রবাসে আপনাদের দেওয়া সম্মানের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।  আপনারা আমাকে নির্বাচিত করে সমাজের সেবা করার গুরু দায়িত্ব অর্পন করেছেন।  আপনাদের সহযোগিতা নিয়ে চান্দগাঁও ওয়ার্ডকে একটি মডেল ইউনিটে রূপান্তরিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। 

চান্দগাঁও সমিতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দ্যগে দুবাইস্থ শরাফ উদ্দিন রেষ্টুরেন্ট হলরুমে আয়োজিত উক্ত সংবর্ধনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহবায়ক ব্যবসায়ী নেতা মোহাম্মদ এয়াকুব সৈনিক। মোহাম্মদ মোরশেদের পরিচালনায় উক্ত সংবর্ধনা সভায় বিশেষ অথিতি ছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাজ্জাদ চৌধুরী, মোহাম্মদ মোরশেদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ফরিদ, সূজা চৌধুরী, শিবলী নোমান চৌধুরী। 

সংবর্ধিত অথিতি সাইফুদ্দিন খালেদ আরো বলেন, চট্টগ্রামের কৃতি সন্তান গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রবাসী কল্যান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি’র যথেষ্ট আন্তরিকতা রয়েছে চান্দগাঁও ওয়ার্ডের জনসাধারনের প্রতি।  যার কারনেই অত্র ওয়ার্ডে উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমরা লাভবান হয়েছি। আগামীতে ও আমরা তার সুফল পাব বলে আশাবাদী।  মন্ত্রী তনয় মুজিব সাহেবের ও প্রশংসা করতে হয় কেননা এলাকার উন্নয়নসহ সুন্দর নগরী গডতে বাবার পাশাপাশি উনার প্রচেষ্টা আমাদেরকে আরো অনুপ্রানিত করেছে। 

তিনি বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে আপনারা চান্দগাঁও সমিতি গঠন করে একটি ইউনিট সৃষ্টি করেছেন, যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।  আপনাদের ঐক্যবদ্ধতা ও সহযোগিতা সুন্দর একটি সমাজ গড়তে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে। সুন্দর নগরী গডে তুলতে আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি। 

সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের আহবায়ক ও ব্যবসায়ী নেতা মোহাম্মদ এয়াকুব সৈনিক বলেন, প্রবাসীরা রেমিট্যন্স যোদ্ধা।  প্রবাসী ব্যবসায়ী, চাকরীজিবী সকলেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের অর্থনৈতিক সচ্চলতা ফিরিয়ে আনতে এই প্রবাসে বিরামহীন পরিশ্রম করে যাচ্ছে।  কিন্তু পরিতাপের বিষয় হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশী কর্মজীবিদের ভিসা জঠিলতা।  এই জঠিলতার কারনে ব্যবসায়ী কিংবা চাকরীজিবী সকলেই চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।  এই জঠিলতা সমাধানের ক্ষেত্রে সরকারের আন্তরিকতার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।  সে বিষয়ে আমরা প্রবাসীরা আশাহত। 

সংবর্ধিত অথিতিকে উদ্দেশ্য করে এয়াকুব সৈনিক আরো বলেন, যেহেতু আপনি মাননীয় প্রবাসী কল্যান মন্ত্রী মহোদয়ের আস্থাভাজন, সেক্ষেত্রে মন্ত্রী মহোদয়কে আমিরাতের ভিসা জঠিলতার বিষয়টা গুরুত্ব সহকারে দেখার পরামর্শ দিলে দেশ অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হবে। 

এতে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ দুলা মিয়া, মোহাম্মদ আজম, জাহাঙ্গীর আলম, আনোয়ার  হোসেন প্রমূখ। 

সংবর্ধনা সভায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে চান্দগাঁও এলাকার প্রবাসীরা এবং সাংবাদিকসহ বিশিষ্টজনেরা অংশগ্রহন করেছে।