৩:৪৩ পিএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০




আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি বাতিলের দাবীতে সড়ক অবরোধ ও গাড়ী ভাংচুর

১৩ এপ্রিল ২০১৮, ১১:৪৩ পিএম | নকিব


বরগুনা প্রতিনিধি  : আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবীতে আন্দোলনরত বরগুনার আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের একাংশটি দ্বিতীয় দিনের কর্মসূচী হিসেবে শুক্রবার পূনরায় পটুয়াখালী-কুয়াকাটা সড়কের আমতলীস্থ নতুন বাজার বটতলা, চৌরাস্তা, বাস-স্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন মোড়ে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ, অবস্থান ধর্মঘট, বিক্ষোভ মিছিল করেছে। 

তারা অবস্থান ধর্মঘটের সাথে দুপুর আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখে এবং মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও মিছিল করে।  এসময় তারা সড়কে টায়ার জালিয়ে প্রতিবন্ধকতা তৈরী করে যান চলাচলে বাধা দেয়।  এতে পটুয়াখালী কুয়াকাটা মহাসড়কে প্রায় দুই শতাধিক যাত্রী বোঝাই গাড়ী আটকিয়ে দেয় ।   খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তাদের বাধা দিলে অবরোধকারী এবং পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।  এতে ১জন পথচারীসহ ৫ জন আহত হয়। 

ছাত্রলীগ নেতা অলি আহম্মেদ জানান, তাদের কর্মী সবুজ মালাকার, রেজা, জাহিদ ও তুর্য নামে ৪ ছাত্র আহত হয়।  আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।  ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় ইটের আঘাতে সাকুরা পরিবহন ও এ্যাংকর কোম্পানির তরল সিমেন্ট বহনকারী ট্রলির সামনের কাঁচ ভাংচুর করে উত্তেজিত অবরোধকারীরা।  সড়ক অবরোধের  ফলে প্রায় দেড় ঘন্টা ধরে সড়কের দুই ধারে শত শত যান বাহন আকটা পড়ে। 

খবর পেয়ে আমতলী পৌর মেয়র ও আমতলী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্পাদক মো: মতিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে অবরোধকারীরার শান্ত হয় এবং তার নিদের্শে অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচল সাভাবিক হয়। 

মেয়রের সাথে উপস্থিত ছিলেন আমতলী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো: মজিবুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান মো: মোতাহার উদ্দিন মৃধা, ও কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলাম জুয়েল. যবরীগ সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান , ত্রিহুইলার সমিতির সভাপতি মো. জহিরুল ইসলাম খোকন মৃধা ।  দীর্ঘ ১৮ বছর পর গত ৯ এপ্রিল সোমবার রাতে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ মো. মাহবুবুল ইসলামকে  সভাপতি  মো. আব্দুল্লহ আল মামুন সবুজকে সাধারন সম্পাদক  করে ১৪ সদস্য বিশিষ্ট আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটির নাম ঘোষনা করে। 

নতুন এ কমিটির নাম ঘোষনার পর পরই ছাত্রলীগের সভাপতি পদ প্রার্থী একাংশের ওলি আহমেদ ও মো. আব্দুল মতিন খান এ কমিটি প্রত্যাক্ষান করে বিবৃতি দেন।  তারা নতুন ঘোষিত কমিটি বাতিল করে পুনরায় কমিটি গঠনের জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  এ ব্যাপারে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি  জুবায়ের আদনান অনিক বলেন  আওয়ামলীগ নেতৃবৃন্দ ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের সাথে সমন্বয় করে প্রকৃত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে থেকেই কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে ।  পদ না পেয়ে যারা অভিযোগ করেছেন তাদের অভিযোগ সঠিক নয় । 

আমতলী পৌর মেয়র মো: মতিয়ার রহমান বলেন, কোন দাবী থাকলে তা শান্তি পূর্ন ভাবে পালন করতে হবে কোন অবস্থায় যান বাহন ভাংচুর এবং বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করা যাবে না।  যদি এরকম কেউ করতে চায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।   রাস্তা অবরোধের বিষয় আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  মো: সহিদ উল্যাহ বলেন খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অবরোধ তুলে দিয়েছে এসময় অবরোধকারী দের সাথে সামান্য ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।  বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপুার (আমতলী সার্কেল এর দায়িত্বে) মো. আ. ওয়ারেস জানান, ছাত্রলীগ সড়ক অবরোধ করেছিল।  আমরা এসে যান চলাচল স্বাভাবিক করেছি।