৯:২৬ এএম, ২২ আগস্ট ২০১৮, বুধবার | | ১০ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে তুচ্ছ ঘটনায় স্কুলছাত্র খুন

১৬ মে ২০১৮, ০৩:৪২ পিএম | সাদি


এম.মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : ক্যরাম খেলার মত তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বন্ধুর হাতে মর্মান্তিকভাবে খুন হওয়া স্কুলর ছাত্র আকাশ মোল্লার (১৪) খুনীদের ফাঁসির দাবিতে বুধবার সহপাঠী, বালিয়াকান্দি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারী এবং ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের উদ্যোগে নীরবতা পালন, কালো ব্যাচ ধারণ, শোক রালী ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

বেলা ১২টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি শোক রালী বের হয়।  শোক র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের নিচে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।  প্রতিবাদ সভা শেষে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পূর্নদিবস স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেন। 

বালিয়াকান্দি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কুতুবউদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে এবং মোহাম্মাদ সোহেল মিয়ার সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক প্রতিনিধি খোন্দকার মশিউল আজম চুন্নু, মাসুদ মোল্লা, সহকারী প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম, শিক্ষক প্রতিনিধি শামসুল আলম মন্টু, নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী রক্তিম দে প্রমুখ।  বক্তারা নিহত আকাশের আত্মার শান্তি কামনা, শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। 

উল্লেখ্য, বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের পাইককান্দি গ্রামে প্রায় এক মাস আগে ক্যারাম খেলাকে কেন্দ্র করে গত সোমবার বিকালে বন্ধুর হাতে নৃশংসভাবে খুন হয় বালিয়াকান্দি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী পাইককান্দি গ্রামের মছিয়াল মোল্লার একমাত্র ছেলে আকাশ মোল্লা (১৪)।   

সোমবার বেলা সাড়ে ৩টায় কিরাম বোড খেলাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে।  এ ঘটনায় বালিয়াকান্দি থানা পুলিশ নয়জনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।  ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পাইককান্দি গ্রামের নুরল মল্লিকের ছেলে মাশুক (১৬), রহুল আমিনের ছেলে রানা (২৩), মেহেদি হাসানের ছেলে সামি মল্লিককে (১৪) আটক করা হয়েছে।  অন্য ছয়জনের পরিচয় এখনো জানা জায়নি।  এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। 


নিহতের বাবা মশিয়াল মোল্লা জানান, প্রায় এক মাস আগে পাইককান্দি গ্রামের নুরুল মল্লিকের ছেলে বালিয়াকান্দি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী মাশুক বিশ্বাস (১৬) এর সঙ্গে স্থানীয় মুদি দোকান ব্যবসায়ি হেলার দোকানে ক্যারম খেলাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়।  তারই প্রেক্ষিতে সোমবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে আমার ছেলে চন্দনা নদী থেকে গোসল সেরে বাড়ি ফেরার পথে পিছন থেকে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে মাশুক।  এসময় আমি ঘটনাস্থলে গেলে আমাকেও কুপিয়ে আহত করে। 

আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে আনা হলে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতাল ও কলেজে প্রেরণ করে।  হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। পরে নিহত আকাশের স্বজনরা ক্ষিপ্ত হয়ে অপর পক্ষের উপর হামলা চালালিয়ে মাশুকের বাবা মো নুরুল মল্লিককে কুপিয়ে আহত করে। 

এ ঘটনায় বালিয়াকান্দি হাসপাতালে নিহতের বাবা মশিয়াল ও মাশুকের বাবা নুরুল মল্লিক ভর্তি রয়েছে। 

থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাসিনা বেগম জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।  ঘটনার সঙ্গে জড়িত সবাইকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।  এ ব্যাপারে একটি হত্যা মামলার দায়ের করা হয়েছে।