৬:৫৯ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার | | ৬ সফর ১৪৪০


গুয়েতেমালার ফুয়েগোতে অগ্ন্যুৎপাতে নিহতের সংখ্যা ৭২

০৬ জুন ২০১৮, ১০:১৪ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : গুয়েতেমালার ফুয়েগো আগ্নেয়গিরি আবারও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে।  মঙ্গলবার থেকে নতুন মুখ দিয়ে লাভা বের হতে শুরু করেছে।  এখন পর্যন্ত অগ্ন্যুৎপাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭২ জনে দাঁড়িয়েছে।  আহত হয়েছেন আরও অনেক।  নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে দেশটির প্রাকৃতিক দুর্যোগ সংস্থা (সিওনআরইডি)। 

বিধ্বস্ত এলাকায় উদ্ধারকাজ পরিচালনা করছেন প্রাকৃতিক দুর্যোগ সংস্থার কর্মীরা। 

ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ফরেন্সিক সায়েন্সের কর্মকর্তা ফ্যানুয়েল গার্সিয়া জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে মাত্র ১৭ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।  বাকি দেহগুলি এতটাই পুড়ে গেছে যে, সেগুলো শনাক্ত করা কঠিন হয়ে পড়েছে। 

লাভার স্রোতের কারণে এল রোডেও, আলোটেনানগো এবং সান মিগুয়েল লস লোটেস এলাকা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।  ওই গ্রামের শত শত ঘরবাড়ি পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে গেছে।  পুড়ে গেছেন অনেক মানুষ। 

আগ্নেয়গিরির কারণে কালো ধোঁয়ায় ঢেকে রয়েছে গুয়েতেমালার আকাশ।  ৬.২ মাইল উপরে উঠেছে বিষাক্ত ধোঁয়া।  দেশটির রাজধানী গুয়াতেমালা সিটি থেকে ২৭ মাইল দূরত্বে অবস্থিত এ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের কারণে দেশটির রাজধানীর আকাশে ধোঁয়া এবং ছাই মেঘের আকার ধারণ করেছে।  বিমানবন্দরের কাজও এতে ব্যাহত হচ্ছে। 

দেশটির প্রাকৃতিক দুর্যোগ সংস্থা জানিয়েছে, ফুয়েগোর অগ্ন্যুৎপাতের কারণে প্রায় ১৭ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।  আর আগ্নেয়গিরি থেকে ১৩০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রার ভয়ঙ্কর লাভা বের হচ্ছে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি। 

প্রেসিডেন্ট জিমি মোরালেস হতাহতদের উদ্ধার ও পরিস্থিতি সামাল দিতে রাষ্ট্রীয় সংস্থাকে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।  ১৯৭৪ সালের পর এটিকেই দেশটির সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে। 


keya