২:৪৭ পিএম, ২০ আগস্ট ২০১৮, সোমবার | | ৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


'জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করলে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে'

১১ জুন ২০১৮, ১১:০৭ পিএম | সাদি


রোকনুজ্জামান মানু, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেন, বাংলার মানুষ আজ ভাল নেই, বাংলার যুব সমাজ আজ ভাল নেই, মানুষ পরিবর্তন চায়।  দেশে আজ সুশাসন নেই, জাতীয় পার্টি দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত করবে।  আমাদের সময় দেশে মাদক ছিল না, আজ মাদকে ছেঁয়ে গেছে। 

তিনি বলেন, আগামীতে জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করলে বাংলাদেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।  তাই শুধু উপ-নির্বাচনে নয়,আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে ভোট দিবেন।  আপনারা আমার সাথে ছিলেন জন্যই আমি জেল থেকে মুক্তি পেয়েছি।  উলিপুরের মানুষের কাছে আমি ঋনী। 

তিনি আরো বলেন, ডাঃ আক্কাছ আলী সরকার ভাল মানুষ, তাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন।  এসময় উপস্থিত হাজার হাজার জনতা হাত উচিয়ে ভোট দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। 

উলিপুরের উন্নয়ন করে উনি আপনাদের সেবা করতে পারবেন।  রবিবার সকালে উলিপুর ষ্টেডিয়াম মাঠে উপজেলা জাতীয় পার্টি আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

উপজেলা জাতীয় পার্টির  সভাপতি আতিয়ার রহমান মুন্সির সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পার্টির কো-চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, বিরোধী দলীয় চীপ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী এমপি, জিয়াউদ্দিন বাবলু এমপি, রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের জাপা মনোনীত প্রার্থী সনিক প্রাইম গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ আক্কাছ আলী সরকার, রংপুর জেলা জাপা’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক। 

উপজেলা জাপা’র প্রচার সম্পাদক ও হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বিএম আবুল হোসেন বিএসসি’র সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা জাতীয় পার্টির সম্পাদক নুরুজ্জামান সরকার, কেন্দ্রীয় নেতা আবু তাহের খায়রুল হক এটি, প্রকৌশলী আনিচুর রহমান রতনসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।  মঞ্চে এরশাদকে সনিক প্রাইম গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ আক্কাছ আলী সরকার সোনার লাঙ্গল দিয়ে বরণ করে নেন। 

প্রচন্ড রোদ ও দাবদাহ উপেক্ষা করে সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষ ব্যানার, ফেস্টুন,প্লাকার্ড নিয়ে জনসভাস্থলে আসতে থাকেন।  সকাল ১১ টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে স্থানীয় হেলিপ্যাডে অবতরণ করলে বর্ণিল ঘোড়া বহরের মাধ্যমে এরশাদকে সভাস্থলে নিয়ে আসা হয়। 

এ সময় উলিপুর স্টেডিয়াম মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়।  এরশাদ মঞ্চে উঠলে হাজার হাজার জনতা তাকে করতালি দিয়ে অভিবাদন জানান।  সভায় যোগ দেয়া দলদলিয়া ইউনিয়নের শহিদুর রহমান মাষ্টার, অবঃ শিক্ষক ওয়াহেদ আলী, কাশেম আলী, হাতিয়ার খলিলসহ অনেকেই জানান, উলিপুরে লাঙ্গলের জোয়ার ছিল,আগামীতেও থাকবে।  এরশাদ কুড়িগ্রামের ছাওয়া, আমরা লাঙ্গলের প্রার্থীকেই ভোট দিব।