৭:২৪ এএম, ১৭ জুলাই ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ জ্বিলকদ ১৪৩৯


চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত

২৮ জুন ২০১৮, ০৫:৫০ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : বুধবার সকাল ১০.০০ ঘটিকায় দামপাড়াস্থ পুলিশ লাইনস্রে মাল্টিপারপাস শেডে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ মাহাবুবর রহমান, পিপিএম মহোদয়ের সভাপতিত্বে কল্যাণ সভা জুন-২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) জনাব মাসুদ উল হাসান, সভায় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) জনাব কুসুম দেওয়ান,অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) জনাব আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) জনাব শ্যামল কুমার নাথ, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) জনাব হারুন-উর-রশিদ হাযারী, উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) জনাব মোঃ আব্দুল ওয়ারীশ, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) জনাব এস.এম. মোস্তাইন হোসেন, বিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) জনাব মোঃ ফারুক উল হক, উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর) জনাব সৈয়দ আবু সায়েম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সিএসবি) জনাব মোঃ মোখলেছুর রহমান, উপ-পুলিশ কমিশনার (এমটি ও সরবরাহ) জনাব মোঃ মারুফ হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-উত্তর) জনাব হাসান মোঃ শওকত আলী, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-বন্দর) জনাব মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, পিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-বন্দর) জনাব ফাতিহা ইয়াছমিন, উপ-পুলিশ কমিশনার (পিওএম) জনাব মোঃ তারেক আহম্মেদ, সকল অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার ও সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ উপস্থিত ছিলেন। 

এছাড়াও ১২.০০ ঘটিকায় সিএমপি’র কনফারেন্স হলে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মে-২০১৮ মাসের মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত হয়।  অপরাধ সভায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ছাড়াও র‌্যাব, সিআইডি, পিবিআই, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ, এপিবিএন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর প্রতিনিধিগণ সভায় অংশগ্রহণ করেন। 

পুলিশ কমিশনার মহোদয় তার বক্তব্যে  মে-২০১৮ মাসে নগরীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সিএমপি’র পুলিশ সদস্য সহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সকল ইউনিটকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  এই প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য সকল থানা, ডিবি সহ অন্যান্য সংস্থাকে যৌথভাবে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করেন। 

সভায় কমিশনার মহোদয় সকল জোনের ডিসিদের স্ব স্ব জোনে মাদক ও ছিনতাই প্রতিরোধে অধিকতর তৎপর হতে বলেন।  সংশ্লিষ্ট ডিসিগণ’কে এই বিষয়টি তদারকি করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়।  এছাড়াও কমিশনার মহোদয় সভায় ওয়ারেন্ট তামিল এবং ওয়ারেন্ট এর গায়ে তামিলকারী অফিসারের কৈফিয়ত উল্লেখ করা, অপমৃত্যু মামলা, নিয়মিত মামলা, ট্রাফিক সংক্রান্ত মামলা সমূহ দ্রুত নিষ্পত্তি করতে ডিসি, এসি ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের তাগিদ প্রদান করেন। 

উক্ত সভায় মে-২০১৮ মাসে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার ও ভাল কাজের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৮৭ (সাতাশি) জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফ’দেরকে নগদ অর্থ ও সম্মাননা সনদ প্রদান করা হয়। 

সভায় পুলিশ কমিশনার মহোদয় অপরাধ দমন ও যানজট নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সদস্য সহ সম্মানিত নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন। 



keya