৯:৩৩ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


হবিগঞ্জে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে কিশোরী

১০ জুলাই ২০১৮, ০৮:৩৬ এএম | জাহিদ


আখলাছ আহমেদ প্রিয়, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরী।  সোমবার বিকেলে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মীর তারিন বাশার লিমার নেতৃত্বে বিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়। 

স্থানীয় সূত্র জানায়, নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের কামারগাঁও গ্রামের আইনউল­ার নাতিন সেজমিন বেগম (১৪) দীর্ঘদিন ধরে তাদের বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে আসছিল।  বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জ সদর ইউনিয়নের জনৈক লোকের সাথে তার বিয়ে ঠিক হয়।  ধুমধামে চলছিল বিয়ের প্রস্তুতি। 

এর আগেই বাল্য বিয়ের খবর পান নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান।  তিনি তাৎক্ষনিকভাবে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মীর তারিন বাশার লিমাকে বাল্য বিয়েটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন।  পরে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে গজনাইপুর ইউনিয়ন সচিবসহ এলাকার গণ্যমান্য লোকজন বিয়ে বাড়িতে গিয়ে কনের নানা এবং পরিবারের সকলকে বাল্য বিয়ের কুফল সর্ম্পকে অবহিত করলে তারা মেয়ের ১৮ পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না বলে লিখিত অঙ্গিকার করেন এবং বিয়ের আয়োজন ভন্ডুল করে দেন।