১২:১৪ এএম, ২১ জুলাই ২০১৮, শনিবার | | ৮ জ্বিলকদ ১৪৩৯


বর্ষার আগমনে নৌকা তৈরিতে ব্যস্ত যমুনা পাড়ের মানুষ

১২ জুলাই ২০১৮, ০৫:৫৮ পিএম | মাসুম


এম এ মালেক,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  ঈদের আমেজ কাটার পর থেকেই বর্ষার আগমনে নৌকা ও লগি-বৈঠা তেরির কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন সিরাজগঞ্জ কাজীপুর উপজেলার নৌকা তৈরির কারিগররা।  অত্র উপজেলার পূর্ব পাশ দিয়ে বহমান যমুনা নদী আর পশ্চিম পাশ দিয়ে ইছামতি নদী প্রবাহিত। 

নদীর তীরবর্তী এবং চর এলাকায় দুই লাখ মানুষ বসবাস করে।  চরবাসীর যোগাযোগের একমাত্র ভরসা নৌকা।  চর এলাকার মানুষদের মূল ভূখণ্ডের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগের জন্য নৌকার কোনো বিকল্প নেই। 

(১২ই জুলাই) বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,গ্রামের কারিগররা নৌকা তৈরি করছে। 
আর নৌকার মালিকরা নৌকা তৈরির উপকরণ সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পারকরছেন।  অত্র উপজেলার মানিকপটল গ্রামের নৌকা তৈরির কারিগর (মিস্ত্রি)মো.আয়নাল মন্ডল বলেন, প্রতি বছর এ সময়ে নৌকা তৈরির হিড়িক পড়ে যায়।  একটি নৌকা তৈরি করতে এক থেকে দুই মাস সময় লাগে। 

নৌকার আকার ও প্রকারভেদে মজুরি নেওয়া হয়। ঢেকুরিয়া, মেঘাই, খাসরাজবাড়ী, রঘুনাথপুর, খুদবান্ধী, নাটুয়ারপাড়া,তেকানী, চরগিরিশ, শালগ্রাম, চরছিন্না যমুনা নদীর ঘাট এলাকা থেকে প্রতিদিন শতাধিক নৌকা বিভিন্ন অঞ্চলে যাতায়াত করে। 

প্রতিদিন ওই সব ঘাট থেকে নৌকায় যাত্রী ও মালামাল পরিবহণ করছে।  যমুনা পাড়ের মানুষের জীবন-জীবিকার সাথে নৌকা জড়িত।  এজন্য বর্ষা মৌসুম আসলেই প্রতিবছর নৌকা তৈরি ও পুরাতন নৌকা মেরামত করে।  ছোট নৌকাগুলো লগি, বৈঠার সাহায্যে কিংবা পাল তুলে নদীর বুকে চলাচল করছে। 

এছাড়া শ্যালো ইঞ্জিন চালিত নৌকা রয়েছে।  এগুলো দূরপাল্লার পরিবহণ হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।  নৌকা ছাড়া যমুনা ও ইছামতি পাড়ের মানুষের যেন কোন ভরসা নেই। 



keya