৯:৪৮ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার | | ১৩ মুহররম ১৪৪০


ক্যান্সার প্রতিরোধে অন্যতম ভূমিকা মিষ্টি কুমড়া

০৭ আগস্ট ২০১৮, ০৯:৩১ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : পুষ্টিগুণে ভরপুর, দামেও সস্তা।  আবার সারা বছরই পাওয়া যায়।  এমন সবজিগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো মিষ্টি কুমড়া।  হালকা মিষ্টি স্বাদের এই সবজিটির নানা স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। 

মিষ্টি কুমড়ায় ভিটামিন এ, বি-কমপ্লেক্স, সি এবং ই, পটাশিয়াম, ক্যারটিনয়েড প্রভৃতি নানা উপাদান রয়েছে।  পুষ্টিগুণে ভরপুর মিষ্টি কুমড়া নিয়মিত খেলে দূরে অনেক রোগ থেকে দূরে থাকা যায়। 

দেহের জ্বালাপোড়া সমস্যা দূর করে :
কুমড়ার ক্যারটিনয়েড এর জন্য রঙ উজ্জ্বল কমলা হয়ে থাকে।  এটি দেহের জ্বালাপোড়ার সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে।  এই সবজির বিটা-ক্যারোটিন উপাদান মানবদেহের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে।  আলফা-ক্যারোটিন উপাদান দেহে টিউমার হওয়া থেকে রক্ষা করে।  কুমড়ার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ভিটামিন-ই মানবদেহকে ক্যান্সার ও আলঝেইমার রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। 

ক্যান্সার প্রতিরোধে :
এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বেটা ক্যারোটিন বিদ্যমান থাকায় এটি ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।  শুধু মিষ্টি কুমড়া নয়, এর বিচিও সুনির্দিষ্ট কিছু ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে থাকে। 

দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে :
ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ-এর মতে, দৈনিক যতটুকু ভিটামিন 'এ' গ্রহণ করতে বলা হয় এক কাপ রান্না করা মিষ্টি কুমড়ায় ২০০ ভাগেরও বেশি ভিটামিন 'এ' বিদ্যমান থাকে।  এ ছাড়া এতে উচ্চ পরিমাণে ক্যারোটিনয়েড রয়েছে, যা দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে সাহায্য করে।  মিষ্টি কুমড়ায় বিদ্যমান বিটা-ক্যারোটিন চোখের ছানিপড়া রোধসহ রেটিনার কোষকে রক্ষা করে।  তাই চোখের সুরক্ষায় মিষ্টি কুমড়া খাওয়ার বিকল্প নেই। 

ওজন কমায় :
মিষ্টি কুমড়ায় উচ্চ ফাইবার রয়েছে।  প্রতি এক কাপ মিষ্টি কুমড়ায় তিন গ্রাম তন্তু এবং মাত্র ৪৯ ভাগ ক্যালরি থাকে।  তাই এই খাবারটি দীর্ঘ সময় পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে।  এর ফলে সহজেই ওজন কমে যায়। 

ত্বকের সুরক্ষায় :
হেলথ ম্যাগাজিনের মতে, ত্বকের বলিরেখা দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে মিষ্টি কুমড়া।  এর ফলে বয়সের ছাপ সহজে পড়ে না।  আবার চুলপড়া কমাতে ও চর্মরোগ প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে এই সবজিটি। 

দাঁত ও হাড়ের যত্নে :
মিষ্টি কুমড়ার শাঁসালো অংশে এবং এর বীজ বা দানায় প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম থাকায় এটি হাড় ও দাঁতের ক্ষয়রোধ করে।  নিয়মিত মিষ্টি কুমড়া খাওয়ার অভ্যাস দাঁত ও হাড়কে করবে আরও মজবুত। 

ওজন কমাতে :
মিষ্টি কুমড়ায় কোনো সম্পৃক্ত চর্বি বা কোলেস্টেরল নেই এবং এতে ক্যালোরির মাত্রাটাও সামান্য।  এতে রয়েছে পুষ্টিকর আঁশ।  এ সবজিটি কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করতে ও ওজন কমাতে বিশেষভাবে সহায়তা করে।