১০:২৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১২ সফর ১৪৪০


উন্নয়নের জোয়ারে পাল্টে যাচ্ছে খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন

০৭ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৪ পিএম | জাহিদ


এম.এ.মালেক, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ৫নং খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রাশীদুল হাসান (রশিদ) এর উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় পাল্টে যাচ্ছে ইউনিয়নের চিত্র। 

অত্র ইউনিয়নে মোট জনসংখ্যা ৪৮ হাজার ৪ শত ৮৫ তার মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২৪ হাজার ২ শত ৫৭ এবং মহিলার সংখ্যা ২৪ হাজার ২ শত ২৮ জন।  পর্যাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও রয়েছে সেই সুবাধে শিক্ষা ক্ষেত্রে রয়েছে ইউনিয়ন বাসীর কড়া নজর। 

ইতিমধ্যে তার বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করেছে।  উন্নয়ন ছাড়াও গ্রাম আদালতের মাধ্যমে জনগনের সমস্যা সমাধান খুব সহজেই হচ্ছে বলে জানান এলাকাবাসী। 

সরজমিনে গিয়ে ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়- ২০১৬ সালে ২ সেপ্টেম্বর চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব গ্রহন করার পর থেকে এলাকাবাসীর উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন চেয়ারম্যান রাশীদুল হাসান(রশিদ)। 

পরিষদের দীর্ঘ বছরের জরার্জীন মূল ফটক ভেঙ্গে লক্ষ টাকা ব্যায়ে নতুন আধুনিক ফটক নির্মান করছেন।  পরিষদকে আরো সুন্দর করার জন্য পরিষদের ভিতরে বিভিন্ন প্রজাতীর ফুলের বাগান করেছে যার ফলে স্কুল ছাত্র ছাত্রী ছাড়াও এলাকাবাসী এখানে বিনোদনের একটি জায়গা পেয়েছে। 

নতুন ও পুরাতন ভবনের রং, লক্ষ টাকা ব্যায়ে দরজা জানালা আংশিক মেরামত, নতুন ও পুরাতন ভবন, ও গ্রাম আদালতের সোলার প্লান, ইউনিয়নের দূর্যোগ পূর্ণ জরার্জীন্ন রাস্তার সোলিং, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাপটপ নারিকেল চারা বিতরণ এবং হত দরিদ্রদের মাঝে ছাগল বিতরণ, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য টিউবয়েল ও ইউনিয়ন পরিষদকে ডিজিটাল সেন্টারকে আধুনিকরন সহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছেন। 

শুধু উন্নয়ন নয় দৃতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান হয়ে বিচারকার্যেও আস্থা অর্জন করেছেন চেয়ারম্যান রশিদ।  তিনি গ্রাম আদালতের মাধ্যমে এলাকার ছোট খাটো ঝগড়া বিবাদ গুলো মিমাংসা করে দেন এবং তা মেনে নেন বাদী ও বিবাদীরা। 

যার ফলে হয়রানী ও আর্থিক দন্ড থেকে রেহায় পাচ্ছে এলাকাবাসী।  এর আগে যেখানে টাকা নিয়ে বয়স্ক ভাতা বিধবা ভাতা ও প্রতিবন্ধি ভাতা কার্ড বিতরণের অভিযোগ থাকলেও এ চেয়ারম্যানের সোমায়ে কোন আর্থিক লেনদেন ছাড়াই তা সুষ্ঠ ভাবে প্রাপ্ত ব্যক্তিদের মাঝে বন্টণ করা হচ্ছে। 

চরশৌলাবাড়ী গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী আব্দুল খালেক বলেন,ইউনিয়নের যেখানেই সমস্যা দেখা দিয়েছে যেখানেই ছুটে যান রশিদ।  আমরা যখন কোন সমস্যা নিয়ে তার কাছে যায় তখন তিনি তা সুষ্ঠ ভাবে আমাদেরকে সমাধান করে দেন।  বিগত চেয়ারম্যান যে কাজগুলো করতে পারেননি, এ চেয়ারম্যান সে কাজ গুলো করছে।  তিনি উন্নয়নের মাধ্যমে আমাদের এলাকার চিত্র পাল্টে দিয়েছেন। 

তার এ উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন অত্র ইউনিয়ন পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন,আমি আমার সাধ্যমত চেষ্টা করছি জনগনের মঙ্গলের জন্য।  ইউনিয়নের বিভিন্ন রাস্তা ঘাট ছোট খাটো ব্রিজ বক্স কালভার্ট সরকারি অনুদানের সুষ্ঠ বন্টন সহ ইউনিয়ন বাসীর উন্নয়নের জন্য আমার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। 


keya