১২:৪৭ এএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | | ৫ রবিউস সানি ১৪৪০




প্রতিদিন হাজারো মানুষ পোহাচ্ছে দুর্ভোগ

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী হাসপাতালের বেহাল অবস্থা

০৭ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৫৬ পিএম | জাহিদ


এম.শিমুল খান, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : অবকাঠামো সমস্যা, ডাক্তার, ওষুধ ও চিকিৎসা উপকরণের অভাবে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা হাজার হাজার মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।  এই হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে থাকে কাশিয়ানী উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের প্রায় আড়াই লাখ মানুষ। 

এ ছাড়া পার্শবর্তী ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার টরগবন্ধ ও আলফাডাঙ্গা ইউনিয়নের ২০ হাজার মানুষও এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ চিকিৎসা নিয়ে থাকেন।  বর্তমানে এই হাসাপাতালে ডাক্তার, ওষুধ ও চিকিৎসা উপকরণের অভাবে কাশিয়ানী ও আলফাডাঙ্গা উপজেলার প্রায় তিন লাখ মানুষ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন প্রতিদিন। 

ব্যাপক অনুসন্ধানে জানা গেছে, কাশিয়ানী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ডাক্তারের কয়েকটি পদ শূন্য থাকায় হাসপাতালে আসা রোগীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।  বাইরে থেকে ডাক্তার এনে কোন রকমে দায়সারা গোছে কাজ চালিয়ে নেয়া হচ্ছে।  এই হাসপাতালে জরুরি বিভাগে কোনো সময়ে চিকিৎসক থাকে না। 

জরুরি রোগী এলে ধার করা ডাক্তার ডেকে আনতে হয়।  এতে বেশির ভাগ রোগীর অবস্থার আরো অবনতি হয়।  অন্য দিকে হাসপাতালে আসা রোগীরা প্রয়োজনীয় ওষুধ ও সেবা পান না।  জরুরি বিভাগের জন্য প্রয়োজনীয় ওষুধ, গজ, ব্যান্ডেজ, সুই-সুতা এমনকি বেন্ডেজ পর্যন্ত রোগীকে কিনতে হয়। 

হাসপাতালে ড্রেনেজ ব্যবস্থা আরো নাজুক।  টয়লেট গুলো কখনোই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পাওয়া যায় না।  সুইপার ও ঝাড়ুদাররা ঠিক মত তাদের দায়িত্ব পালন করে না।  ফলে হাসপাতালের ভেতরে ও বাইরে সব সময়ই থাকে নোংরা, দুর্গন্ধযুক্ত ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ।  সব মিলে এই হাসপাতালের নিজেরই চিকিৎসা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই। 

এই হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য একটি ল্যাবরেটরি এবং একজন দক্ষ টেকনিশিয়ান থাকলেও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও ওষুধের অভাবে মাত্র দু-তিনটি ছোট খাটো পরীক্ষা ছাড়া আর কোনো পরীক্ষা এখানে করা সম্ভব হয় না।  এ ছাড়াও একজন দন্ত বিশেষজ্ঞের পদ থাকলেও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি না থাকায় দাঁতের চিকিৎসাও হচ্ছে না এ হাসপাতালে। 

এ সকল বিষয়ে কথা বলতে চাইলে হাসপাতালে গুরুত্বপুর্ন পদের তেমন কাউকে পাওয়া যায়নি।