৩:১৩ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৭ রবিউস সানি ১৪৪০




নাটোরের মুক্তিযোদ্ধাদের সরকারি নির্দেশে চিকিৎসা সেবা না পাওয়ার অভিযোগ

০৯ আগস্ট ২০১৮, ০৩:৫২ পিএম | জাহিদ


মো.রাশেদুল ইসলাম, নাটোর প্রতিনিধি : সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক সরকারি বেসরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা, ঔষধ এবং কেবিনে সীট পাচ্ছেন না নাটোরের বীর মুক্তিযোদ্ধারা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

নাটোর সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ’৭১ ও সাবেক উপজেলা কমান্ডার যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা শেখ মোঃ আবুল হোসেন এক লিখিত বক্তব্যে এ অভিযোগ করেন। 

বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ মোঃ আবুল হোসেন জানান ২০১৪ সালের ২৮ শে জানুয়ারী গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাপকম/হাস-০৩ বিবিধ-১০(৪)/২০০২/৪৪ জারীকৃত পরিপত্র মোতাবেক জরুরী ভিত্তিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবার সুচিকিৎসা প্রদানের নির্দেশনা থাকলেও তারা তা পাচ্ছেন না। 

এমনকি কেবিন ও বিনামূল্যে ঔশধ তো পাচ্ছেনই না উপরন্তু ঔশধ হাসপাতালে নেই বলে বাইরে থেকে কেনার জন্য প্রেসক্রিপশন হাতে ধরিয়ে দেয়া হয়।  এমনকি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা নিরীক্ষাও হাসপাতালের মেশিন নষ্ট হয়েছে বলে বাইরের ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে টেস্ট করানোর কথা বলা হয়।  কেবিন খালি থাকলেও অসুস্থ্য মুক্তিযোদ্ধাদেও বলা হয় কেবিন খালি নেই। 

এ অবস্থায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন বলে অভিযোগ করেন যুদ্ধাহত এ মুক্তিযোদ্ধা। 

তাছাড়াও শেখ মোঃ ফরিদ, আবুল হোসেন দুলাল সহ অনেক বীর মুক্তিযোদ্ধা একই অভিযোগ দেন।  তারা বলেন আমরা ৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধ করেছি।  বর্তমানে তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান প্রদর্শন করে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, ঔষধ, কেবিনের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।  অথচ আমরা এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছি।  নাটোরের বীর মুক্তিযোদ্ধারা অনতিবিলম্বে এই সকল সুযোগ সুবিধা পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

এ ব্যাপারে নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আজিজুল ইসলাম বলেন, এ অভিযোগ সত্য নয়।  বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য হাসপাতালে ফ্রি ঔষধের ব্যাবস্থা আছে, যে পরীক্ষা নিরীক্ষা হাসপাতালে হয় তাদেরকেও সে সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়।  আর তাঁদের জন্য ১টা কেবিনেরও ব্যবস্থা আছে। 

কিন্তু সেই কেবিনে অন্য মুক্তিযোদ্ধা থাকলে তো আর তাঁকে সরিয়ে আর কাউকে সে সুযোগ দেয়া যাবে না।  হাসপাতালে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানে চিকিৎসা বাবদ সরকারের নির্দেশিত সকল সুবিধাই বিদ্যমান আছে।