৫:৫০ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


খাগড়াছড়িতে আদিবাসী দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি

০৯ আগস্ট ২০১৮, ০৩:৩৮ পিএম | জাহিদ


সাগর চক্রবর্তী কমল, মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি : “আদিবাসী জাতিসমূহ দেশান্তর: প্রতিরোধের সংগ্রাম” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে খাগড়াছড়িতে নানা কর্মসূচিতে বিশ্ব আদিবাসী দিবস পালিত হয়েছে। 

কর্মসূচিগুলো থেকে আদিবাসীদের ভূমি অধিকার ও সংবিধানে আদিবাসী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার দাবী জানানো হয়। 

নটি উপলক্ষে সকালে ১১ টায় দিকে এমএন লারমার সমর্থিত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির উদ্যোগে শহরের খাগড়াপুর কমিউনিটি সেন্টারে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় জনসংহতি সমিতিরি রাজনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক বিভূ রঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির তথ্য ও প্রচার বিষয়ক সম্পাদক সুধাকর ত্রিপুরা, যুব বিষয়ক সম্পাদক রনজীবন চাকমা, কেন্দ্রীয় মহিলা সমিতির সহ সাধারণ সম্পাদক ববিতা চাকমা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সুমেধ চাকমা, তুষার চাকমা প্রমুখ। 

এর আগে শহরের মহিলা কলেজ এলাকা থেকে আদিবাসী দিবস উপলক্ষে একটি র‌্যালী বের করা হয়।  বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিল, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট কাউন্সিল ও ওয়াইডাব্লিউসিএ এর যৌথ উদ্যোগে এই র‌্যালী বের করা হয়।  র‌্যালীটি শহরের গুরুত্বপূর্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে শহীদ কাদের সড়ক এলাকায় এক আলোচনা সভা করে। 

সভায় আদিবাসী ফোরামের খাগড়াছড়ির শাখার সমন্বয়ক চাইথোয়াই মারমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন নারী অধিকার নেত্রী নমিতা চাকমা, ওয়াইডব্লিউসিএ এর চেয়ারপার্সন প্রতিমা রোয়াজা, মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ক্যাওপ্রু মারমা, জেলা সভাপতি মংচিংহ্লা মারমা,কলেজ সভাপতি মাপ্রু মারমা, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি বিপুল বিকাশ ত্রিপুরা। 

কর্মসূচিগুলোতে বক্তারা, পাহাড় ও সমতলের সব আদিবাসীদের শিক্ষা, সংস্কৃতি, ভূমি ও জীবনের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান। 

এছাড়াও তারা অবিলম্বে পার্বত্য চুক্তির সব ধারা বাস্তবায়ন এবং পাহাড়ের ভূমি সংকট নিরসনের দাবী করেন।  একই সাথে তারা সংবিধানে আদিবাসী হিসেবে স্বীকৃতিরও দাবী জানান।