৪:১৮ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার | | ১১ সফর ১৪৪০


অকালে চলে গেলেন টেনিস কোচ ও চেয়ার আম্পায়ার বিদ্যুৎ চক্রবর্তী

১০ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৩০ পিএম | জাহিদ


মাতুব্বর শফিক স্বপন, মাদারীপুর প্রতিনিধি : অকালে চলে গেলেন টেনিস কোচ ও চেয়ার আম্প্যায়ার, টেনিস, ব্যাডমিন্টন, ক্রিকেট খেলোয়ার, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক ব্যাডমিন্টন সম্পাদক ও কার্যনির্বাহী সদস্য, দীর্ঘ ১৫ বছর তরুণ সংঘের সাধারণ সম্পাদক, ক্রিকেট ক্লিনিকের সদস্য, বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক ও সমাজ হিতৈষী বিদ্যুৎ চক্রবর্তী (৪৫)। 

তিনি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় মাদারীপুর টেনিস গ্রাউন্ডে টেনিস খেলতে খেলতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে টেনিস র‌্যাকেট হাতে নিয়ে তার প্রিয় মাঠের মধ্যে পড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেন।  এই টেনিস কোচ ও চেয়ার আম্প্যায়ার বিদ্যুৎ চক্রবর্তী মাদারীপুর পৌরসভা ঠাকুর বাড়ির বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নীলকমল চক্রবর্তীর (নীলু ঠাকুর) বড় ছেলে।  তিনি ক্রীড়াঙ্গনের পাশাপাশি তিনি এক সময় সাংবাদিকতার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।  তার এ অকাল মৃত্যুতে মাদারীপুর ক্রীড়াঙ্গনসহ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষ শোকে স্তব্ধ হয়ে গেছে। 

মৃত্যুকালে তিনি পিতা-মাতা, কাকা-কাকী, ৩ ভাই, ১ বোন, স্ত্রী, এক পুত্রসহ অসংখ্য ভক্ত অনুরাগী রেখে গেছেন।  শুক্রবার বেলা ১০টায় নিজ বাড়িতেই তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়।  তিনি খেলাধুলা এতটাই ভালোবাসতেন যে, তার একমাত্র ছেলেকে বিকেএসপিতে টেনিস বিভাগে ভর্তি করিয়ে দেন। 

বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর অকাল মৃত্যুর সংবাদ শুনে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, রোকসানা ইয়াসমিন ছুটি (মহিলা এমপি), জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মিয়াজ উদ্দিন খান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সিনিয়র সহসভাপতি ও পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পাভেলুর রহমান শফিক খান,

পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান ও ক্রিকেট ক্লিনিকের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খলিলুর রহমান খান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট ওবাইদুর রহমান কালু খান, সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান সাহাবুদ্দিন হাওলাদার, সাবেক মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান হোমায়রা লতিফ পান্না, বর্তমান মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পারভীন জাহান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ গোলাম কবির, ক্রিকেট ক্লিনিকের সাধারণ সম্পাদক আমির বাবু মুন্সী, জেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকসহ শত শত ভক্ত অনুরাগী তার বাড়ি ছুটে যান এবং গভীর শোক প্রকাশ করেন। 


keya