৩:৩৭ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার | | ২০ সফর ১৪৪৩




তাসমিনার ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখতে নওগাঁয় হাজারো মানুষের ঢল

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল


আব্দুল মান্নান, নওগাঁ: নওগাঁ পাকহানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে রোববার ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।  এতে অংশ নেয় ধামইরহাটের সেই কিশোরী তাসমিনা আক্তার।  তাসমিনার ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখতে শহরের এ-টিম হাজার মানুষের ঢল নামে। 

স্থানীয় সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন একুশে পরিষদের আয়োজনে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা ছাড়াও নওগাঁ মুক্ত দিবস উপলক্ষে সকাল ১০টায় আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। 

শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব দেন নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর আসনের সাংসদ আব্দুল মালেক।  শোভাযাত্রাটি শহরের এ-টিম মাঠ থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় এ-টিম মাঠে এসে শেষ হয়।   

পরে সেখানে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।  ২৩টি ঘোড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।  দুটি দলে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। 

পুরুষদের সঙ্গে ‘এ’ গ্রুপে তাসমিনা তার ‘বিজলী’ নামক ঘোড়া নিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করে। 

দ্বিতীয় হয় তাসমিনার বাবার ঘোড়া।  এতে ঘোড়সওয়ার ছিল ফারুক হোসেন নামের এক কিশোর।  তৃতীয় হয় আব্দুল মজিদের ঘোড়া। 

আর ‘বি’ গ্রুপ থেকে প্রথম স্থান অধিকার করে আইনুল হকের ঘোড়া, দ্বিতীয় হয় তোফাজ্জল হোসেনের ঘোড়া এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করে ছয়ের উদ্দিন বাবুর ঘোড়া। 

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, একুশে পরিষদের সভাপতি অ্যাড. ডিএম আবদুল বারী। 

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রকিবুল আক্তার, নওগাঁ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউর বারী, সাবেক সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা ওহিদুর রহমান, একুশে পরিষদের উপদেষ্টা ডা. ময়নুল হক দুলদুল ও সাধারণ সম্পাদক মেহমুদ মোস্তফা রাসেল।  প্রথম পুরস্কার বিজয়ীদের টেলিভিশন এবং অন্যদের মুঠোফোন উপহার দেওয়া হয়। 

তাসমিনাকে গত বছরের ১৭ জুন ‘এক দুঃখী ঘোড়সওয়ারের গল্প’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।  এই খবর প্রকাশের পর গাজিপুরের ঘোড়া খামারি উলফত কাদের তাকে ঘোড়া উপহার দেন।  তাসমিনাকে একটি প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করা হয়।  সেই প্রামাণ্যচিত্রটি ইউটিউব ও ফেসবুক পেজে ছড়িয়ে পড়লে তাসমিনার পরিচিতি আরও ছড়িয়ে পড়ে সারাদেশে। 

১১ বছর বয়সী অশ্বারোহী সেই বিস্ময় বালিকার আসার খবর শুনে তাকে দেখতে সকাল থেকেই স্থানীয় জনগণ শহরের এ-টিম মাঠে ভীড় জমান।  দর্শকদের অনেকেই তার সঙ্গে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। 

ধামইরহাট উপজেলার গ্রামের তাসমিনা উপজেরার শঙ্করপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। 
প্রতিযোগিতার আয়োজক একুশে পরিষদের সভাপতি অ্যাড. ডিএম আবদুল বারী বলেন, ‘১৯৭১ সালের ১৮ ডিসেম্বর নওগাঁ পাকহানাদার মুক্ত হয়।  এই আনন্দ সবাই এক সঙ্গে উপভোগ করতে আনন্দ শোভাযাত্রা ও ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। 

ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখতে হাজার হাজার মানুষের সমাগম হয়েছে।  বিশেষ করে তাসমিনাকে দেখতে মানুষের বিশেষ আগ্রহ দেখা গেছে।  মেয়েটি যেভাবে ঘোড়া চালিয়ে প্রথম হলো এটি সত্যিই বিস্ময়কর। ’

 

সম্পাদনায়: সাইমুন/এসএনএন২৪.কম