৬:১৪ এএম, ২০ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




কারাগারের বন্দীও বন্যার্তদের সাহায্য করতে চান

৩০ আগস্ট ২০১৮, ১০:১৫ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম :  কারাগারের কেটে গেছে দীর্ঘ আড়াই দশক।  আত্মীয় স্বজনদের কেউই কখনও দেখা করতে আসেননি।  জন্মভূমি কেরালার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে বহু আগেই।  আলিপুর সংশোধনাগারে বন্দী থাকা সেই শেখ আজিজের সঙ্গে জন্মভূমিকে ফের জুড়ে দিল ভয়াবহ বন্যা। 

সম্প্রতি বন্যাবিধ্বস্ত কেরালায় ত্রাণ পাঠাতে চেয়ে আলিপুর সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন সত্তরোর্ধ্ব ওই বৃদ্ধ।  বন্দী জীবনে শ্রমের বিনিময়ে উপার্জিত অর্থের একাংশ কেরালার ত্রাণে দান করতে এ আবেদন করেছেন তিনি। 

এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, ১৯৯৩ সালের ১৬ মার্চ বৌবাজার বিস্ফোরণের প্রধান অভিযুক্ত রশিদ খানের অন্যতম সহযোগী ছিলেন আজিজ।  গ্রেফতারের পর থেকে আলিপুর সংশোধনাগারে রয়েছেন তিনি।  পরবর্তীতে আদালতে তিনি দোষী প্রমাণিতও হন। 

সংশোধনাগারে অন্য সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের মতো আজিজও শ্রমের বিনিময়ে অর্থ উপার্জন করেছেন।  সেই উপার্জনের একাংশ বন্দিরা নিজেদের ইচ্ছা মতো খরচ করতে পারলেও বাকিটা পারেন না।  বাকি অংশ কোনো কাজে ব্যবহার করতে চাইলে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হয়।  নিজের উপার্জনের সেই অংশ থেকেই কেরালার ত্রাণে এক লাখ টাকা পাঠাতে চান আজিজ। 

ভারতের কেরালায় ভারী বর্ষণ ও বন্যায় প্রায় চারশ জন মারা গেছেন।  উদ্ধার করা হয়েছে ৭ লাখ ২৪ হাজার ৬৪৯ জনকে।  সম্প্রতির এ বন্যাকে শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। 



keya