১১:৫৫ এএম, ২১ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




চবি উপাচার্যকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

৩০ আগস্ট ২০১৮, ০৫:৩৬ পিএম | মাসুম


চবি প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরেণ্য সমাজ বিজ্ঞানী,শিক্ষাবিদ,বুদ্ধিজীবী প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীকে হত্যার হুমকি প্রদানের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু চত্বরে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

চবি অফিসার সমিতির সভাপতি জনাব এ কে এম মাহফুজুল হক এর সভাপতিত্বে এবং তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির সভাপতি জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেনের পরিচালনায় এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. আহমদ সালাউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অলক পাল,সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মহীবুল আজীজ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) জনাব কে এম নুর আহমদ,শাহ আমানত হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম কবীর,অফিসার সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ শাহ আলম,বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ রাশেদ-উন-নবী ও সাধারণ সম্পাদক জনাব মোহাম্মদ মশিবুর রহমান, কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ নুরুল ইসলাম শহীদ, কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি জনাব আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক জনাব নুর মোহাম্মদ বাচ্চু এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ ফরহাদ হোসেন খান। 

বক্তাগণ বরেণ্য সমাজ বিজ্ঞানী উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীকে হত্যার হুমকি প্রদান করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং কাপুরুষোচিত-ন্যাক্কারজনক এ কর্মকান্ডের সাথে জড়িতদের অনতিবিলম্বে খুঁজে বের করে দেশের প্রচলিত আইনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জোর দাবী জানান এবং ইতোপূর্বেও উপাচার্যকে এধরনের হত্যার হুমকি প্রদান করা হয়েছে উলে­খ করে বক্তাগণ নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। 

তাঁরা আরও বলেন,উপাচার্যের সুযোগ্য-বলিষ্ট নেতৃত্বে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা,উচ্চশিক্ষা-গবেষণা উন্নয়ন,প্রশাসনিক কর্মকান্ডে গতিশীলতা বৃদ্ধি,ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন,ক্রীড়া-শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চা ইত্যাদি সহ সার্বিক ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হয়েছে এর ফলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এখন দেশের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়। 

এ অর্জনে চবি পরিবারের সকল সদস্য আজ বিশেষ সম্মানে মর্যাদাসীন।  উপাচার্যের নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে বক্তাগণ বলিষ্ট কন্ঠে বলেন,উপাচার্যকে প্রাণনাশের হুমকী প্রদানকারী মানুষরূপী অন্ধকারের পশুদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করা হবে। 

বক্তাগণ উপাচার্যকে আত্মশক্তিতে বলিয়ান থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে নিয়ে তাঁর ‘মিশন’ ও ‘ভিশন’ বাস্তবায়নে উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানান। 

এ প্রতিবাদী মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক সম্মনিত শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। 



keya