৪:২৩ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


আফ্রিকা থেকে গ্রিন-টির নামে আসে ‘এনপিএস’ ভয়াবহ মাদক

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৩:১৪ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : বাংলাদেশে ১৬শ কেজি এনপিএস বা খাত আনার সময় চালানের গাঁয়ে লেখা ছিল পণ্যটির নাম ‘গ্রিন-টি’।  কিন্তু গ্রিন-টি’র নাম করে যে মাদক আনা হচ্ছে সে বিষয়টি গোপন করা হয়েছিল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে।  আর এভাবেই চালানটি আফ্রিকার ইথিওপিয়া থেকে বাংলাদেশে আনা হয়। 

মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মালিবাগ সিআইডি প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন সিআইডি অর্গানাইজড ক্রাইমের ডিআইজি মো. শাহ আলম। 

রাজধানীর শাহজালাল বিমানবন্দরে চতুর্থ দফায় জব্দ করা এই ইথিওপিয়া থেকে আনা নতুন মাদক এনপিএস বা খাত।  আর এসব খাত আনা হয়েছিল ৪২টি কার্টুনে করে। 

সব মিলে ৯৬টি কার্টুনে আনা হয়েছিল এসব মাদক।  বিমানবন্দরের বৈদেশিক পার্সেল শাখা থেকে এসব মাদক জব্দ করা হয়।  মাত্র একটি প্রতিষ্ঠানের নামে আসে এ মাদকের চালানটি বলেও জানান তিনি। 

তিনি জানান, চালানটি বাংলাদেশে এশিয়া এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান আমদানি করেছিল।  তারা একাই এই ১৬শ কেজি ইথিওপিয়ান গাজা বা এনপিএস আমদানি করে।  তবে কোন ব্যক্তি এই মাদকটি দেশে আনার জন্য সহায়তা করেছে তার নাম ও ঠিকানা জানতে পারেনি সিআইডি। 

তারপরও কার্টুনের গাঁয়ে যে ঠিকানা ব্যবহৃত হয়েছে তা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।  পাশাপাশি কার্টুনে থাকা একটি মোবাইল ফোন নাম্বারটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।  এ খাত বহনকারী ও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানকে খোঁজার চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি। 

সিআইডি কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা প্রাথমিকভাবেই একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নাম জানতে পেরেছি।  তবে তারা আসল প্রতিষ্ঠান কিনা তাও যাচাই করা হচ্ছে।  এর সাথে যারাই জড়িত থাকবেন কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।  ইতোমধ্যে পল্টন থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।  সেই মামলার তদন্তে অনেক কিছু বেরিয়ে আসবে। ’

মাদক ব্যবসায়ীরা নিত্য নতুন কৌশলে মাদক দেশে আনছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা বিভিন্ন কৌশলে মাদক দেশে নিয়ে আসছে।  তারই অংশ হিসেবে এই প্রতিষ্ঠানটি গ্রিন-টি নামে একটি চালান আসবে বলে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি।  জব্দকৃত এই মাদকের বাজারমূল্য দুই কোটি ৩৭ লাখ ৯৫ হাজার ৪০০ টাকা। ’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিআইডি অর্গানাইজড্ ক্রাইম এর (হোমিসাইডাল এবং সিরিয়াস) শাখার অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার রাজীব ফারহান, সিআইডির মিডিয়া শাখার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শারমিন জাহান প্রমুখ। 


keya