১:০৭ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০


কারিগরি শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপের ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ

১৭ অক্টোবর ২০১৮, ০২:০৫ পিএম | জাহিদ


দেশের ৫৬৬টি কারিগরি ইনস্টিটিউটে শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপের ভাতার প্রায় ৯০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। 

ইন্টার্নশিপের চার মাস অতিক্রম হওয়ার পরও এ অর্থ না পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে এক ধরণের চাপা ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।  তবে বাজেট পাস না হওয়ায় ইন্টার্ন শিক্ষার্থীদের সম্মানী দেয়া হয়নি বলে একাধিক অধ্যক্ষ দাবি করেছেন। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সরকারি কারিগরি ইনস্টিটিউটের ডিপ্লোমা কোর্স শেষে ছয় মাসের ইন্টার্নি শেষে হয়েছে।  ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের কোর্স শেষে দেশের বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিতে ছয় মাস ইন্টার্নশিপে পাঠানো হয়। 

এতে দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১৩০ জন করে ৫৬৬টি প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ৭৩ হাজার ৫৮০ জন শিক্ষার্থী ইর্ন্টনি শেষ করার ৪ মাস অতিবাহিত হলেও এখনও তাদের সম্মানী বাবদ ১২ হাজার টাকা পরিশোধ করা হয়নি বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

নাম প্রকাশে একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের ইন্টার্নি শেষে পরবর্তী এক মাসের মধ্যে সম্মানী দেয়ার কথা থাকলেও চার মাসেও সেই অর্থ পরিশোধ করা হয়নি।  বলা হচ্ছে- নির্বাচনের মাসে এ বাবদ বাজেট পাস না হওয়ায় অর্থ পাওয়া নিয়ে অনিশ্চিয়তা সৃষ্টি হয়েছে। 

এ কারণে ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের কোর্স শেষ হওয়া শিক্ষার্থীদের এ অর্থ দেয়া হচ্ছে না।  প্রতিষ্ঠান এ অর্থ আত্মসাৎ করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন তারা। 

জানা গেছে, গত ১৩ অক্টোবর শেরপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মো. সাখাওয়াত হোসেনের স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।  তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপের অর্থ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। 

নির্বাচনী মাস হওয়ায় এ সংক্রান্ত বাজেট পাস হয়নি।  এ কারণে তাদের সম্মানী দেয়া হচ্ছে না, তবে পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নি সম্মানী দেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

জানতে চাইলে এ প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ সাখাওয়াত হোসেন বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘আমরা এ সংক্রান্ত বাজেট পেয়েছি।  পূজার ছুটির পর শিক্ষার্থীদের সম্মানী বুঝিয়ে দেয়া হবে।  তবে কে বা কারা যেন আমার স্ক্যান করা স্বাক্ষর জুড়ে দিয়ে এমন মিথ্যা বিজ্ঞপ্তি ছড়িয়ে দিচ্ছে। ’

প্রতিষ্ঠানের সম্মান নষ্ট করতে এমন মিথ্যাচার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন এই অধ্যক্ষ। 

এ ছাড়াও একাধিক জেলার কারিগরি ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষের কাছে জানতে চাইলে কেউ কেউ এ বাবদ অর্থ পেয়েছে আবার কেউ এখনও পায়নি বলেও জানান। 

এদিকে কারিগরি অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছরের মতো এবারও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের ইন্টার্নশিপের সম্মানী দিতে ৮৮ কোটি ২৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার বাজেট পাস করা হয়েছে। 

২ অক্টোবর এ অর্থ সকল জেলার কারিগরি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে।  দ্রুত এ অর্থ শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দিতেও বলা হয়েছে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কারিগরি অধিদফতরের মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) অসীম কুমার বলেন, শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপের অর্থ দিতে ইতোমধ্যে বাজেট পাস করা হয়েছে।  নির্বাচনের জন্য কাউকে সম্মানী দেয়া হবে না এটি সত্য নয়। 

তারপরও যদি কেউ শিক্ষার্থীদের প্রাপ্য বুঝিয়ে না দেয় তাহলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।  অভিযোগের সত্যতা পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।